তােমার দেখা একুশে বইমেলা সম্পর্কে একটি প্রতিবেদন তৈরি করাে

তােমার দেখা একুশে বইমেলা সম্পর্কে একটি প্রতিবেদন, একুশে বইমেলা সম্পর্কে প্রতিবেদন রচনা,প্রতিবেদন - একুশে বইমেলা সম্পর্কে, একুশে বইমেলা সম্পর্কে প্রতিবেদন রচনা বইয়ের

    তােমার দেখা একুশে বইমেলা সম্পর্কে একটি প্রতিবেদন তৈরি করাে 

        

        একুশের বইমেলা : সম্মিলিত প্রাণের জোয়ার 

    নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ ঢাকা ॥ এ বছরও জমে উঠেছে বাঙালি চেতনা ও মননের প্রতীক একুশের বইমেলা । প্রথম সপ্তাহের আলােচিত ঘটনা পরিক্রমার পর দ্বিতীয় সপ্তাহে মেলার অবস্থা আরাে জমজমাট । একুশের চেতনা ও বাংলা সাহিত্যের ওপর ধারাবাহিক সেমিনার আয়ােজন যেমন চলছে , তেমনই দর্শক উপচে পড়া মেলা প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হচ্ছে লােকসংগীতসহ ঐতিহ্যবাহী সংগীতানুষ্ঠান । আলােচিত ও বিখ্যাত লেখকদের বইপত্রের সাথে সাথে প্রতিদিনই যােগ হচ্ছে প্রতিশ্রুতিশীল নতুন নতুন লেখকদের প্রকাশনা । 

    আর্থিক মন্দার কারণে মেলা জমে ওঠার ব্যাপারে শুরুর দিকে সংশয় থাকলেও শেষ পর্যন্ত লেখক , পাঠক , ক্রেতা , দর্শক সমন্বয়ে বইমেলা তার চির গর্বিত আপন রূপটিই ফিরে পেয়েছে । এবারের একুশে বইমেলার পরিবেশ সুশৃঙ্খল ও কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থার চাদরে মােড়ানাে । উপচে পড়া ভিড়ের মধ্যে যেকোনাে বিশৃঙ্খলা প্রতিরােধে বদ্ধপরিকর র্যাব সদস্যদের তত্ত্বাবধানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি , দোয়েল চত্বর দুদিক থেকেই দীর্ঘ লাইন ধরে মেলা প্রাঙ্গণে ঢুকতে হচ্ছে । 

    এক ঘণ্টা , দু ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে থেকেও সুশৃঙ্খলভাবে একুশের বইমেলা প্রাঙ্গণে প্রবেশের এ দৃশ্যপট সত্যিই প্রশংসনীয় । মেলা প্রাঙ্গণে বেশকিছু ক্লাজড সার্কিট ক্যামেরা থাকায় শৃঙ্খলা পর্যবেক্ষণ সহজ হচ্ছে । নজিরবিহীন নিরাপত্তা ব্যবস্থার ফলে পেট্রোল বােমার আতঙ্ক উপেক্ষা করে প্রতিদিন বিপুলসংখ্যক মানুষ মেলা প্রাঙ্গণে আসছে ।বাংলা একাডেমি তথ্যসূত্র অনুযায়ী এ বছর এ পর্যন্ত হাজারের অধিক নতুন বই মেলায় এসেছে । মুদ্রণজনিত বিলম্বের ফলে আরাে কিছু বই আসার অপেক্ষায় । 

    প্রতিদিনই লেখককুঞ্জে বেশকিছু নতুন বইয়ের মােড়ক উন্মােচন হচ্ছে । এবারে প্রকাশিত বইগুলাের মধ্যে গল্প , উপন্যাস ছাড়াও উল্লেখযােগ্য সংখ্যক তাত্ত্বিক ও বিশ্লেষণধর্মী এবং মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক বইপত্র রয়েছে । তবে নতুন প্রকাশিত বইয়ের মধ্যে কবিতার বই - ই সর্বাধিক । বিক্রয় সংখ্যার দিক থেকে হুমায়ূন আহমেদের হিমুর মধ্যদুপুর ’ - এর নাম শােনা গেলেও ‘ ডিজুস প্রেমের কবিতা সংকলনটি সাড়া জাগিয়েছে । তবে সর্বাধিক বেশি বিক্রি হয়েছে কম্পিউটার প্রযুক্তি ও শিশু সাহিত্যের বই । পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্স লি . ' সূত্রে জানা গেছে , তাদের বিক্রি করা বইগুলাের মধ্যে শিশু সাহিত্যই সর্বাধিক । 

    স্বনামধন্য লেখকগণের পদচারণায় মুখরিত এবারের একুশে বইমেলা । কবি আল মাহমুদ , রফিক আজাদ , নির্মলেন্দু গুণ , মহাদেব সাহাদের মতাে বয়ােজ্যেষ্ঠ কবি ছাড়াও শামীম সিদ্দিকী , শামীম রেজা , মজনু শাহ , সরকার আমিন , রাহেল রাজিব , শাহনাজ মুন্নী প্রমুখ এ প্রজন্মের প্রতিশ্রুতিশীল কবি সাহিত্যিকদের দেখা মিলবে লিটল ম্যাগাজিন চত্বরে । একুশের বইমেলা বাংলাদেশের প্রাণের প্রতীক । ভাষা আন্দোলনের চেতনা জাগরূক মাসব্যাপী এ মেলা লেখক , পাঠক , দর্শক ও বােদ্ধা সমাজের পদচারণা - মুখরিত এক সম্মিলিত প্রাণের জোয়ার । ফলে একুশের বইমেলার চেতনা যেন সকল প্রতিকূলতা জয় করে কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছে যাওয়ার দূত অঙ্গীকার ।



    Tag: তােমার দেখা একুশে বইমেলা সম্পর্কে একটি প্রতিবেদন, একুশে বইমেলা সম্পর্কে প্রতিবেদন রচনা,প্রতিবেদন - একুশে বইমেলা সম্পর্কে, একুশে বইমেলা সম্পর্কে প্রতিবেদন রচনা বইয়ের

    Previous Post Next Post

    👇 সকল ক্লাসের এসাইনমেন্ট নোটিফিকেশন আকারে সহজে পেতে ডাউনলোড করুন আমাদের এপ্লিকেশন 

    আমাদের ফেসবুক পেইজে যুক্ত হতে ক্লিক করুন