শরীর দুর্বল হলে কি খেতে হয় |শরীরের দুর্বলতা কাটানোর ঔষধ | শরীর দুর্বল থেকে মুক্তির উপায়

শরীর দুর্বল হলে কি খেতে হয় |শরীরের দুর্বলতা কাটানোর ঔষধ | শরীর দুর্বল থেকে মুক্তির উপায়


আসছালামু আলাইকুম প্রিয় পাঠক পাঠিকা সবাই কেমন আছেন? আসা করি সবাই আল্লাহর রহমতে ভালো আছেন। প্রিয় পাঠকবৃন্ধ আজকে আমরা তোমাদের শরীর দুর্বল হলে কি খেতে হয় -শরীরের দুর্বলতা কাটানোর ঔষধ -শরীর দুর্বল থেকে মুক্তির উপায় এই বিষয় নিয়ে আলোচনা করবো। আসা করি তোমাদের উপকারে আসবে। বন্ধুরা আমাদের অনেক সময় শরির দুর্বল হয় আর শরির দুর্বল হলে কি খেতে হবে, শরীর দুর্বল থেকে মুক্তির উপায় আমরা খুজে থাকি তাই আজকের আমাদের এই পোস্ট। 


   
       

    শরীর দুর্বল হলে কি খেতে হয় 

    বন্ধুরা শরীর দুর্বল হলে আমাদের কি কি খাওয়া লাগবে দেখে নিন--

    ১. ভিটামিন-সি
    শরীরের দুর্বলতা কাটাতে ভিটামিন-সি অনেক গুরুত্বপূর্ণ। ভিটামিন-সির অভাব পূরণে বেশি করে টকজাতীয় ফল যেমন— লেবু, কমলা, আঙুর খেতে হবে। এ ছাড়া কিউই, পালংশাক, লেটুসপাতা ও মরিচ বেশি খেতে পারেন। এগুলোও ভিটামিন-সি সমৃদ্ধ খাবার।

    ২. প্রোটিন
    প্রোটিন যুক্ত খাবার শরীরের দুর্বলতা কাটাতে অনেক কার্যকর। ডিম হচ্ছে— প্রোটিইনের একটি ভালো উৎস। এটি খেলে তা দেহের কোষ সুস্থ রাখতে সাহায্য করে এবং এতে লুটেইন ও জিক্সানথিন (ক্যারোটিনয়েড) থাকায় তা দৃষ্টিশক্তি বাড়াতে ও বয়সের ছাপ দূর করতে সহায়তা করে। এ ছাড়া ডাল ও মটরজাতীয় খাবারেও প্রোটিন থাকে।

    ৩. আয়রন
    দেহে আয়রন বা লৌহের পরিমাণ বজায় রাখতে সবুজ শাকসবজি, মটর, ডাল, টফু, শুকনো ফল ও ডার্ক চকলেট খেতে পারেন। এগুলো আয়রনের ভালো উৎস।

    ৪. সেলেনিয়াম
    সেলেনিয়াম সমৃদ্ধ খাবারে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকার কারণে এগুলো ক্লান্তিভাব, নিদ্রাহীনতা ও দুর্বলতা কমাতে সহায়তা করে। এ ধরনের খাবারগুলো দীর্ঘমেয়াদি হৃদরোগ থেকে সুস্থ রাখতেও সহায়ক হিসেবে কাজ করে। সেলেনিয়াম যুক্ত করতে মটর, বাদাম ও ডিম খেতে পারেন।

    ৫. প্রোবায়োটিক্স প্রাকৃতিকভাবেই শরীরকে সুরক্ষিত রাখতে প্রোবায়োটিক্স সমৃদ্ধ খাবার খেতে পারেন। এর জন্য দই খেতে পারেন। এতে ল্যাক্টিক অ্যাসিড ও প্রোবায়োটিক সমৃদ্ধ ব্যাক্টেরিয়া থাকে। এ ছাড়া নরম পনির, শুকনো ইস্ট, পাতাবহুল সবজি, ছানা এবং সবুজ সবজিতে প্রোবায়োটিক থাকে।

    শরীরের দুর্বলতা কাটানোর ঔষধ 

    বন্ধুরা শরীর দুর্বল ভিবিন্ন কারনে হয়ে থাকে। আপনাকে আগে সেই কারন বের করতে হবে এবং সেই অনুযায়ী মেডিসিন খেতে হবে । নরমালি শরির দুর্বল হলে ভিটামিন ট্যাবলেট খেতে পারেন এবং আপনি হামদর্দ এর সিনকারা সিরাপ খেতে পারেন। এটি আপনার শারীরিক দূর্বলতা দূর করবে। আর বেশি দুর্বল অনুভব করলে অবশ্যই ডাক্তার পরামর্শ অনুযায়ী ঐষদ খেতে হবে।

     শরীর দুর্বল থেকে মুক্তির উপায়

    আমাদের জীবনের বিভিন্ন সময়েই কাজের মাঝে কিংবা অযথাই শরীরে ভর করে রাজ্যের ক্লান্তি এবং দুর্বলতা। শরীর নাড়াতেও কষ্ট হয়, চোখ মেলে তাকানোও যায় না। মাথা খাটানো জাতীয় কোনো কাজই করা সম্ভব হয়ে উঠে না। অনেকে এই সমস্যায় পড়ে অজ্ঞানও হয়ে যান। শারীরিক দুর্বলতা কাজের উৎসাহ একেবারে নষ্ট করে দেয়। কিন্ত এই ধরনের শারীরিক দুর্বলতা কাটাতে প্রয়োজন আমাদের একটু সতর্কতা।

    শারীরিক দুর্বলতা আমরা চাইলেই ঘরে বসে ঠিক করতে পারি। এর জন্য প্রয়োজন স্বাস্থ্যসম্মত খাবারদাবার। যা আপনাকে কিছুটা হলেও সুস্থ করে তুলবে। চলুন তাহলে জেনে নিই ৪ টি ঘরোয়া উপায়।

    কলা

    কলার মধ্যে আছে প্রাকৃতিক চিনি, ফ্রুকটোস, গ্লুকোজ যা খুব দ্রুতই আমাদের দেহে শক্তি যোগায়। তাছাড়া কলাতে আছে পটাশিয়াম ও মিনারেলস উপাদান যা শক্তি বৃদ্ধি করে। কলার ফাইবার উপাদান আমাদের দেহের রক্তে গ্লুকোজ লেভেল নিয়ন্ত্রনে রাখে।

    যখনি শরীর খারাপ লাগবে তখন ১/২ কলা খেয়ে নিন। চাইলে জুস বানিয়েও খেতে পারেন। শরীর ভাল রাখতে ও দুর্বলতাকে দূর করতে একটি পাকা কলার সাথে মধু মিশিয়ে পেস্ট করে খেতে পারেন।

    কাজুবাদাম

    কাজুবাদামে আছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ই , যা আমাদের শরীরে শক্তি বৃদ্ধি করে এবং শরীর দুর্বল হয়ে যাওয়ার লক্ষণগুলোর সাথে লড়াই করে আমাদের সুস্থ রাখে। ২/৩ টি কাজুবাদাম, কয়েকটি কিশমিশ ও একটি ডুমুর সারারাত ভিজিয়ে রাখুন। সকালে পানি থেকে কাজুবাদাম, কিশমিশ ও ডুমুর আলাদা করে নিন এবং পানিটি পান করুন। সরিয়ে রাখা জিনিস গুলো পেস্ট করে খেয়ে ফেলুন। আপনার সাথে সবসময় কিছু কাজুবাদাম রাখুন। যখনই কোন কারণে দুর্বল লাগবে তখনই কয়েকটি কাজুবাদাম খেয়ে নিন।

    দুধ

    শরীর সুস্থ রাখতে সবচেয়ে ভাল খাদ্য হল দুধ। নানা ধরণের স্বাস্থ্যকর ভিটামিনে ভরপুর দুধ আমাদের দেহের দুর্বলতা খুব স্ফজেই দূর করে। এবং দুধের ক্যালসিয়াম উপদান আমাদের দেহের হাড় মজবুত করে। যখনই শরীর খারাপ লাগবে তখন ১ গ্লাস দুধের সাথে ১ চামচ মধু মিশিয়ে খান। আপনি চাইলে দুধের মধ্যে ২/৩ ডুমুর ফল দিয়ে তা সেদ্ধ করে সেই দুধ খেতে পারেন। এই ডুমুর মিশ্রিত দুধ দেহের দুর্বলতা দূর করবে।

    শারীরিক দুর্বলতা দূর করতে এক গ্লাস গরম দুধের সাথে বাটার মিশিয়ে প্রতিদিন ২ বেলা খেতে পারেন।

    ডিম

    শারীরিক দুর্বলতা দূর করতে সবচেয়ে ভাল খাদ্য হল ডিম। ডিমে আছে প্রোটিন, আয়রন, ভিটামিন এ, ফলিক এসিড, রিবফ্লেভিন এবং পেন্টথেনিক এসিড। তাই দেহের সুস্থতায় প্রতিদিন একটি করে ডিম খান। 


    Tag:শরীর দুর্বল হলে কি খেতে হয়, শরীরের দুর্বলতা কাটানোর ঔষধ,  শরীর দুর্বল থেকে মুক্তির উপায়

                                   
    Previous Post Next Post
    আমাদের ফেসবুক পেইজে যুক্ত হতে ক্লিক করুন  

     

    আপনার নামের অর্থ জানতে ক্লিক করুন