ছায়াবাজি সুকুমার রায় কবিতা | কবিতা ছায়াবাজি | Kobita Chayabaji Sukumar Ray


       
       

    ছায়াবাজি সুকুমার রায় কবিতা  

    কবিতা ছায়াবাজি  

    Kobita Chayabaji Sukumar Ray


    ছায়াবাজি 

    সুকুমার রায়


    আজগুবি নয় , আজগুবি নয় , সত্যিকারের কথা- 

    ছায়ার সাথে কুস্তি করে গাত্রে হলাে ব্যথা ! 

    ছায়া ধরার ব্যবসা করি তাও জানাে না বুঝি ? 

    রােদের ছায়া , চাঁদের ছায়া , হরেক রকম পুঁজি । 

    শিশির ভেজা সদ্য ছায়া , সকাল বেলায় তাজা , 

    গ্রীষ্মকালে শুকনাে ছায়া ভীষণ রােদে ভাজা । 

    চিলগুলাে যায় দুপুর বেলায় আকাশ পথে ঘুরে 

    ফাঁদ ফেলে তার ছায়ার উপর খাঁচায় রাখি পুরে । 

    কাগের ছায়া বগের ছায়া দেখছি কত ঘেঁটে 

    হাল্কা মেঘের পানসে ছায়া তাও দেখেছি চেটে । 

    কেউ জানে না এসব কথা কেউ বােঝে না কিছু , 

    কেউ ঘােরে না আমার মতাে ছায়ার পিছু পিছু । 

    তােমরা ভাবাে গাছের ছায়া অমনি লুটায় ডুয়ে , 

    অমনি শুধু ঘুমায় বুঝি শান্ত মতন শুয়ে ; 

    আসল ব্যাপার জানবে যদি আমার কথা শােনাে 

    বলছি যা তা সত্যি কথা , সন্দেহ নাই কোনাে 

    কেউ যবে তার রয় না কাছে , দেখতে নাহি পায় , 

    গাছের ছায়া ছটফটিয়ে এদিক ওদিক চায় ।

    সেই সময়ে গুড়গুড়িয়ে পিছন হতে এসে 

    ধামায় চেপে ধপাস করে ধরবে তারে ঠেসে । 

    পাতলা ছায়া , ফোকলা ছায়া , ছায়া গভীর কালাে 

    গাছের চেয়ে গাছের ছায়া সব রকমেই ভালাে । 

    গাছগাছালি শেকড় বাকল সুদ্ধ সবাই গেলে , 

    বাপরে বলে পালায় ব্যামাে ছায়ার ওষুধ খেলে । 

    নিমের ছায়া ঝিঙের ছায়া তিক্ত ছায়ার পাক 

    যেই খাবে ভাই অঘাের ঘুমে ডাকবে তাহার নাক । 

    চাঁদের আলােয় পেঁপের ছায়া ধরতে যদি পারাে , 

    শুকলে পরে সর্দিকাশি থাকবে না আর কারাে । 

    আমড়া গাছের নােংরা ছায়া কামড়ে যদি খায় 

    ল্যাংড়া লােকের ঠ্যাং গজাবে সন্দেহ নাই তায় । 

    আষাঢ় মাসের বাদলা দিনে বাঁচতে যদি চাও , 

    তেঁতুলতলার তপ্ত ছায়া হপ্তা তিনেক খাও । 

    মৌয়া গাছের মিষ্টি ছায়া ব্লটিং দিয়ে শুষে 

    ধুয়ে মুছে সাবধানেতে রাখছি ঘরে পুষে ! 

    পাক্কা নতুন টাটকা ওষুধ এক্কেবারে দিশি— 

    দাম করেছি শস্তা বড় , চোদ্দ আনা শিশি ।



    Tag: ছায়াবাজি সুকুমার রায় কবিতা,  কবিতা ছায়াবাজি,  Kobita Chayabaji Sukumar Ray

    Previous Post Next Post