বিভিন্ন প্রকার কংক্রিটের উপাদান ও অনুপাত লিপিবদ্ধ করণ | এসএসসি/দাখিল (ভোকেশনাল) এসাইনমেন্ট ২০২১ উত্তর /সমাধান ৩য় সপ্তাহের বিল্ডিং মেইন্টেন্যন্স-১ (এসাইনমেন্ট ৩) | ২০২১ সালের এসএসসি/দাখিল (ভোকেশনাল) ৩য় সপ্তাহের বিল্ডিং মেইন্টেন্যন্স-১ এসাইনমেন্ট সমাধান ( ২য় পত্র)


    ২০২১ সালের এসএসসি/দাখিল (ভোকেশনাল) ৩য় সপ্তাহের বিল্ডিং মেইন্টেন্যন্স-১ এসাইনমেন্ট সমাধান ( ২য় পত্র)


    বিভিন্ন প্রকার কংক্রিটের উপাদান ও অনুপাত লিপিবদ্ধ করণ


    সমাধানঃ


    কংক্রিটের ধারণাঃ 

    সিমেন্ট , বালি , খােয়া ( ইটের টুকরাে ) , পাথরের টুকরাে পানির সঙ্গে মিশিয়ে যে নির্মাণসামগ্রী বা মিশ্রণ ( মশলা ) তৈরি করা হয় , তাকে ঢেলে চাপ দিয়ে নির্দিষ্ট আকার দেয়া হয় । শুকানাের পর একেই কংক্রিট বলে । সাধারণ কংক্রিটের চাপ ( টান ) ও ঘাতসহতা ক্ষমতা কম । তাই মধ্যখানে লােহা বা ইস্পাতের রড় রেখে তার চারিদিকে কংক্রিট জমালে তা অত্যন্ত শক্ত এবং চাপ ও ঘাতসহ হয় । এ ধরনের কংক্রিটকে বলে রি ইনফোর্সড ( re - inforced ) কংক্রিট অথবা রি - ইনফোর্সড সিমেন্ট কংক্রিট , সংক্ষেপে সি সি ( RCC ) । কংক্রিট এর মধ্যে বাতাসের পরিমাণ যত কম , অর্থাৎ ঘনত্ব যত বেশি হয় এবং পানি ও সিমেন্টের অনুপাত যত কম হয় কংক্রিট তত বেশি শক্ত হয় । তবে এ অনুপাত ০.২ এর কম হলে সিমেন্টের হাইড্রেশন বিক্রিয়ার জন্য প্রয়ােজনীয় পানির স্বল্পতা থাকায় এ কংক্রিটের শক্তিমত্তা কম হয় ।


    কংক্রিটের উপাদানঃ 

    কংক্রিট প্রধানত চার প্রকার । যথা : 

    ক ) লাইম কংক্রিট ( Lime Concrete ) 

    খ ) সিমেন্ট কংক্রিট ( Cement Concrete ) 

    গ ) আর , সি , সি কংক্রিট ( Reinforced Cement Concrete ) 

    ঘ ) প্রি স্ট্রেসড কংক্রিট ( Pre - Stressed Concrete ) 


    ১. লাইম কংক্রিট ( Lime Concrete ) : নির্দিষ্ট অনুপাতে জমাট বাঁধাইকারী উপাদান ( চুন ) , খােয়া ( ব্রিক চিপস ) , মােটা দানার উপাদান ( সুরকি ) এবং পানি সহযােগে মিশ্রিত করে রাসায়নিক প্রক্রিয়ায় জমাট বাঁধিয়ে লাইম কংক্রিট ( Lime Concrete ) প্রস্তুত করা হয় । 


    ২. সিমেন্ট কংক্রিট ( CementConcrete ) : নির্দিষ্ট অনুপাতে জমাট বাঁধাইকারী উপাদান ( সিমেন্ট ) , খােয়া ( ব্রিক চিপস ) / স্টোন চিপস , বালু এবং পানি সমন্বয়ে তৈরিকৃত কংক্রিট ।


    ৩.আর.সি.সি ( Reinforced Cement Concrete ) : স্টিল বা রড ( রি - বার / রিইনফোর্সিং বার ) এর শিয়ার এবং টানা বল সহ্য করার ক্ষমতাকে কাজে লাগিয়ে কাঠামাের যে সমস্ত মেম্বারকে টানা বল এবং শিয়ার সহ্য করতে হয় , সে সমস্ত জায়গায় প্লেইন কংক্রিটের উপাদানের পাশাপাশি প্রয়ােজনীয় রড ( রি বার / রিইনফোর্সিং বার ) সহযােগে আর.সি.সি কংক্রিট ব্যবহৃত হয় । যেমন - বিম , স্ল্যাব ইত্যাদি । 


    ৪.প্রিস্ট্রেসড কংক্রিট : নির্দিষ্ট অনুপাতে জমাট বাঁধাইকারী উপাদান , মােটা দানা উপাদান , সরু দানা উপাদান , প্রিস্ট্রেসিং রিইনফোর্সিং ওইয়ার ( ট্র্যান্ড ) এবং পানির সংমিশ্রণে রাসায়নিকভাবে তৈরিকৃত জমাটবদ্ধ কংক্রিটই প্রিস্ট্রেসড কংক্রিট । বৃহৎ নির্মাণ কাজে বা যেখানে স্থানান্তর খরচ কম এবং সাটারিং দুঃসাধ্য , সেখাণে কাঠামাে নির্মানে প্রি - স্ট্রেসড কংক্রিট ব্যবহারে আর্থিক সাশ্রয় হয় । দালানের বিভিন্ন অংশ যেমন- কলাম , বিম , স্ল্যাব ইত্যাদি নির্মাণে প্রি - স্ট্রেসড কংক্রিট ব্যবহার করা হয় ।


    কংক্রিটের অনুপাতসমূহ:

    কংক্রিটের মধ্যে মূল উপাদান থাকে সিমেন্ট , বালু ও পাথর । আর এদের সহায়ক হিসেবে থাকে পানি ও এডমিক্সার । ইঞ্জিনিয়ারিং - এর ভাষাতে সিমেন্ট হলাে বডিং এজেন্ট । বালু হলাে ফাইন এগ্রিগেট এবং পাথর হলো কোর্স এগ্রিগেট । পানি সিমেন্টের সাথে বিক্রিয়া করে সিমেষ্ট + বালি পাথরকে একটি উপাদানে বেধে ফেলে । পুরাে উপাদান হয়ে পাথরের মতাে শক্ত । সিমেন্ট , বালি , পাথর , পানি ও এডমিক্সারের অনুপাতের উপরই নিক্ক করে কংক্রিট এর ক্ষমতা । 


    মিক্স ডিজাইন : 

    আমরা সাধারণ ভাষাতে সিমেন্ট , পাথর , বালু বলে থাকি । 

    যেমন ১২ : ৩ অথবা ১ : ১.৫ : ৩ অথবা ১ : ২ : ৪ । কিন্তু এই অনুপাতই সবকিছু না । 

    সিমেন্ট পানির অনুপাত একটি গুরুত্বপুর্ণ বিষয় । আবার পাথরের মধ্যে বিন্নি সাইজের পাথরের মিশ্রণও খুব গুরুত্বপূর্ণ যেমন ধরুন সকল পাথর যদি ২০ মিলি সাইন্সের হয় , তাহলে কি ভালাে হবে না । এর চেয়ে ছেটি সাইজের মিশ্রণ থাকতে হবে পাথরের মধ্যে । এই জন্যই কিন্তু পাথরের সাইজের সাথে একটি কথা যুক্ত থাকে । তা হলাে ' ডাউন গ্রেডেড " । অর্থাৎ এর চেয়ে ছােট সাইজের পাথর এবং সেটাও সঠিকভাবে থাকতে হবে।এই মিশ্রণের অনুপাত বের করার পদ্ধতিকেই মিক্স ডিজাইন বলে।

    ১.খুব কম পরিমাণ ফাকা বা ভয়েজের অবস্থানঃ এতে খেয়াল রাখতে হবে যেন মিক্সারের মধ্যে যেন গ্যাপ । বা শূন্যতা ( void ) না থাকে । অর্থাৎ এতে ঘনত্ব বেশি থাকে । 


    . ফুলার ও থমসন পদ্ধতি : এটিও ঘনত্ব বাড়ানাের একটি পদ্ধতি । তাদের সূত্রানুসারে P = 100 x rootd / D ) = d এর চেয়ে ছােট উপাদানের শতকরা হার , d = ছােট উপাদানের সাইজ এবং D = বড় উপাদানের সাইজ । 20 মিমি যদি বড় সাইজের হয় , 4.75 যদি ছােট সাইজের হয় , তাহলে 4.75 এর চেয়ে হেটি সাইজের উপাদান থাকতে হবে 50 শতাংশ । 


    ৩. ফাইনােল মদুলাল পদ্ধতি : 

    p = 100 ( A - B ) / ( AC ) 

    P = ফাইন এগ্রিগেটের অনুপাত মােট এপ্রিপেটের সাথে 

    A = কোর্স এগ্রিগেটের ফাইনলেস মডুলাস 

    B = টেবিল অনুসারে , সিমেন্টের সাথে সম্পর্কিত সর্বোচ্চ অনুমােদিত ফাইনলেস মডুলাস 

    C = ফাইন এগ্রিগেটে ফাইননেস মডুলস  

    সিমেন্ট, বালি, পাথর, পানি ও এড মিক্সারের অনুপাতের উপর নির্ভর করে কংক্রিটের ক্ষমতা। 



    এসএসসি/দাখিল (ভোকেশনাল) এসাইনমেন্ট ২০২১ উত্তর /সমাধান ৩য় সপ্তাহের বিল্ডিং মেইন্টেন্যন্স-১ (এসাইনমেন্ট ৩)



    Tagএসএসসি/দাখিল (ভোকেশনাল) এসাইনমেন্ট ২০২১ উত্তর /সমাধান ৩য় সপ্তাহের বিল্ডিং মেইন্টেন্যন্স-১ (এসাইনমেন্ট ৩),  ২০২১ সালের এসএসসি/দাখিল (ভোকেশনাল) ৩য় সপ্তাহের বিল্ডিং মেইন্টেন্যন্স-১ এসাইনমেন্ট সমাধান ( ২য় পত্র), বিভিন্ন প্রকার কংক্রিটের উপাদান ও অনুপাত লিপিবদ্ধ করণ

    Previous Post Next Post