ছেলেদের চুল পড়ার কারণ কি | অল্প বয়সে চুল পড়ার কারণ | মেয়েদের চুল পড়ার কারণ ও প্রতিকার | চুল পড়ার ডাক্তারি চিকিৎসা


আসসালামুআলাইকুম সবাইকে Educationblog.Com এ স্বাগতম। 

আশা করি আল্লাহুর অশেষ রহমতে আপনারা সবাই ভালো আছেন। আলহামদুলিল্লাহ আমরাও আল্লাহর অশেষ রহমতে ভালো আছি। 

বন্ধুরা আজকে আপনাদের মাঝে Educationblog.Com নিয়ে আসলো ছেলেদের চুল পড়ার কারণ কি,  অল্প বয়সে চুল পড়ার কারণ,  মেয়েদের চুল পড়ার কারণ ও প্রতিকার,  চুল পড়ার ডাক্তারি চিকিৎসা, ছেলেদের চুল পড়ার প্রতিকার এই সম্পর্কে পোস্টে পাবেন সবকিছু।


    ছেলেদের চুল পড়ার কারণ কি  

    ★হরমোনজনিত কারণ: অ্যান্ড্রোজেনিক হরমোন যেমন টেস্টোস্টেরন, অ্যান্ড্রোস্ট্রেনডিয়ন, ডিএইচটি হরমোনগুলো সাধারণত পুরুষের বেশি ও মহিলাদের কম পরিমাণে থাকে। এ হরমোনগুলো হেয়ার ফলিকলের ওপর কাজ করে ও চুল পড়া ত্বরান্বিত করে। সে কারণে পুরুষের চুল বেশি পড়ে। তবে সবারই যে পড়বে তা নয়, যাদের এসব হরমোনের প্রভাব বেশি তাদের বেশি করে চুল পড়ে,,,,!!!!!

    ★মানসিক চাপ: দুশ্চিন্তায় ভুগলে বা মানসিক সমস্যা থাকলে, স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি করে চুল পড়তে পারে। তবে এ চুল পড়া সাময়িক এবং পুনরায় চুল গজায়। তবে দীর্ঘদিন মানসিক দুশ্চিন্তায় থাকলে বা দুশ্চিন্তা কাটিয়ে উঠতে না পারলে, অনেক বেশি চুল পড়ে যেতে পারে,,,,!!!!"

    ★স্বাস্থ্যগত সমস্যা: প্রয়োজনীয় ভিটামিন ও মিনারেল এর অভাবেও চুল পড়তে পারে। অনেকসময় দূরারোগ্য কিছু রোগে আক্রান্ত হলেও প্রচুর চুল পড়ে,,,,!!!!

    ★খুশকি: চুল পড়ার প্রত্যক্ষ কারণের একটি এই খুশকি,,,!!!!

    ★মাদকাসক্তি: অ্যালকোহল, ড্রাগস এসবের আসক্তি আপনার মাথার মূল্যবাণ চুলগুলোকে অসময়ে কেড়ে নিতে পারে,,,,!!!

    ★ভিটামিনের অভাব: অনেক সময় চুল পুষ্টিহীনতা ও ভিটামিনের অভাবে ঝরে যায়। 


    ছেলেদের চুল পড়ার প্রতিকার

    ভিটামিনসমৃদ্ধ খাদ্যা: শরীরে সুষম ও পুষ্টিকর খাবার সরবারহ করতে পারলে অচিরেই আপনার চুল পড়া কমে যাবে। ভিটামিন শুধুমাত্র আমাদের শরীরের জন্যই ভালো না আমাদের চুলের জন্যও ভালো,,,!!!!

    ★ভালো তেল ব্যবহার: যারা চুল পড়া ও চুলের নানাবিধ সমস্যা নিয়ে চিন্তিত, তারা কয়েক মিনিটের জন্য হলেও সপ্তাহে ২–৩ বার মাথায় ভালো মানের কোনো তেল ম্যাসাজ করুন। যেমন–তিলের তেল, বাদাম তেল ব্যবহার করতে পারেন। এগুলো আপনার চুলের ফলিকলগুলোকে কর্মক্ষম রাখতে সহায়তা করবে। আর মাথায় নতুন চুল গজানোর জন্য বা চুল ঘন করার উপায় হিসেবে ক্যাস্টর অয়েল ব্যবহার করতে পারেন,,,,!!!!

    ★মাদকাসক্তি পরিহার: অ্যালকোহল আপনার চুলের বৃদ্ধিতে বিঘ্ন ঘটায়। চুলের সুস্থতা বজায় রাখতে হলে অ্যালকোহল থেকে দূরে থাকুন। সিগারেট আপনার স্কাল্পে রক্ত সঞ্চালনে বাঁধা দেয় যার ফলে চুলের বৃদ্ধি হ্রাস পায়। সুতরাং, অ্যালকোহল, ড্রাগস ও সিগারেট থেকে দূরে থাকুন,,,,!!!!

    ★দুশ্চিন্তা না করা: অনেকে ক্ষেত্রেই পুরুষদের চুল পড়ে মানসিক চাপ বা দুঃশ্চিন্তা থেকে। তাই এগুলো কমাতে হবে। আর কমানোর জন্য ইয়োগা, মেডিটেশন খুব উপকারী। নামাজ বা প্রার্থণা করাও আপনাকে সহায়তা করবে দুশ্চিন্তা কমাতে,,,,!!!!

    ★চুলের যত্ন নেওয়া: প্রতিদিনের ব্যস্ততা ও বাইরে ঘোরাঘুরির জন্য আপনার চুলে জমা হয় অনেক ময়লা। এতে করে খুশকিও বৃদ্ধি পায়। তাই চুলে ভালো অ্যান্টি ড্যানড্রাফ শ্যাম্পু ব্যবহার করে নিয়মিত পরিষ্কার রাখতে হবে চুল। গোসলের আগে কিছু ক্ষণের জন্য লেবু এবং পেঁয়াজের রস ব্যবহার করলেও পাবেন অনেক উপকার,,,!!!!


    অল্প বয়সে চুল পড়ার কারণ  

    ★অল্প বয়সেই চুল উঠে টাক পড়ে যাওয়ার বড় একটা কারণ হল স্ট্রেস,,,!!!

    ★চুলের সঠিক যত্ন না নেওয়ার কারণেও চুল উঠে যেতে পারে,,,,!!!!

    ★কম বয়সে চুল উঠে যাওয়ার অন্যতম কারণ হল অস্বাস্থ্যকর ডায়েট,,,,!!!

    ★চুলে অতিরিক্ত পরিমাণে ব্লিচিং, ডাই করার ফলেও চুল উঠে যায়,,,!!!!

    ★এছাড়া, হরমোনের পরিবর্তন, থাইরয়েড এবং বিভিন্ন রোগের কারণেও চুল উঠতে পারে,,,!!!!

    ★অতিরিক্ত মাথা গরম হওয়ার কারণেও চুল পড়ে যায়,,,!!!! 

    ★মাথায় চুলের পুষ্টিহীনতা ও চুলের ভিটামিনের জন্য চুল ঝরে যায়,,,,!!!!


    মেয়েদের চুল পড়ার কারণ ও প্রতিকার  

    #যে সমস্ত কারণে মেয়েদের অধিক চুল ঝরে যাই তা নিচে দেওয়া হলো—

    ★শারীরিক অসুস্থতা। (যে কোনো অস্ত্রোপচারের পর, রক্তস্বল্পতা, ওজন কমে যাওয়া) ইত্যাদির ফলে চুল ঝরে যাই,,,!!!!

    ★ মানসিক চাপ, অতিরিক্ত কর্মব্যস্ততা ও প্রচুর মাথা গরমের ফলে চুল ঝরে যাই,,,,!!!!

    ★ থাইরয়েড হরমোনজনিত সমস্যার কারণে,,,!!!

    ★ ডায়াবেটিসজনিত রোগের কারণে,,,,!!!

    ★ পলিসিসটিক ওভারি এর কারণে,,,,!!!!

    ★ মূত্রনালির প্রদাহ,,,,!!!"

    ★ গর্ভাবস্থা, পরিবার পরিকল্পনার জন্য পিল খাওয়া,,,,!!!!

    ★ঋতুস্রাব বন্ধ হয়ে যাওয়া ফলে,,,,!!!!

    ★ অতিমাত্রায় ভিটামিন ‘এ’ গ্রহণ, উচ্চরক্তচাপের ওষুধ গ্রহণ করার জন্য,,,,,!!! "

    প্রতিকার

    আপনার রোগজনিত কারণে চুল ঝরে গেলে ডাক্তারি পরামর্শ মতো ব্যবস্থা নিতে হবে।

    তাছাড়া চুলের যত্ন নেওয়াটা অধিক প্রয়োজন। এবং মানসিক চাপ থেকে দূরে থাকতে হবে। 


    চুল পড়ার ডাক্তারি চিকিৎসা 

    অস্বাভাবিক হারে চুল হারানোর কারণ মূলত দুটি—বংশগত ও বয়সজনিত। বংশগত বা জেনেটিক কারণে চুল পড়ার ক্ষেত্রে হরমোন দায়ী। এ ছাড়া বয়স বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে চুলের ফলিকলগুলো সংকুচিত হয়ে যায় বা চুলের বৃদ্ধিচক্র সংক্ষিপ্ত হয়ে যায়। ফলে চুল গজানোর হারের চেয়ে পড়ার হার বেড়ে যায়। এসব ক্ষেত্রে মিনোক্সিডিল টপিক্যাল সলিউশন চুলের ফলিকলগুলো বৃদ্ধি করার মাধ্যমে চুলের বৃদ্ধি পর্যায় সংক্ষিপ্ত করে। এতে চুল লম্বা ও ঘন হয়। এ ছাড়া এই পদ্ধতি রক্ত চলাচল বাড়িয়ে চুলের বৃদ্ধি ত্বরান্বিত করে।

    মিনোক্সিডিল টপিক্যাল সলিউশন ব্যবহার করার পর কোমল ও সাধারণ শ্যাম্পু ব্যবহার করা যাবে।

    চুল পড়া রোধে সর্বোত্তম চিকিৎসা হচ্ছে, মিনোক্সিডিল টপিক্যাল সলিউশনের সঙ্গে পিআরপি (প্লাটিলেট-রিচ প্লাজমা) থেরাপি নেওয়া। তবে [বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ীই সবকিছু করতে হবে।] নিজে থেকে কিছু করতে গেলে হিতে বিপরীত হতে পারে। আবার সব চিকিৎসা সবার জন্য প্রযোজ্য নাও হতে পারে।



    Tag: ছেলেদের চুল পড়ার কারণ কি,  অল্প বয়সে চুল পড়ার কারণ,  মেয়েদের চুল পড়ার কারণ ও প্রতিকার,  চুল পড়ার ডাক্তারি চিকিৎসা, ছেলেদের চুল পড়ার প্রতিকার

                                   

    0/Post a Comment/Comments

    Previous Post Next Post

      আপনার নামের অর্থ জানতে ক্লিক করুন


    আমাদের ফেসবুক পেইজে যুক্ত হতে ক্লিক করুন