বোশেখ আল মাহমুদ কবিতা | কবিতা বোশেখ | Kobita Boshek Al Mahmud


       
       

    বোশেখ আল মাহমুদ কবিতা  

    কবিতা বোশেখ  

    Kobita Boshek Al Mahmud


    বোশেখ 

    আল মাহমুদ 


    যে বাতাসে বুনােহাঁসের ঝাঁক ভেঙে যায় 

    জেটের পাখা দুমড়ে শেষে আছাড় মারে 

    নদীর পানি শূন্যে তুলে দেয় ছড়িয়ে 

    নুইয়ে দেয় টেলিগ্রাফের থামগুলােকে । 


    সেই পবনের কাছে আমার এই মিনতি 

    তিষ্ঠ হাওয়া , তিষ্ঠ মহাপ্রতাপশালী , 

    গরিব মাঝির পালের দড়ি ছিড়ে কী লাভ ? 

    কী সুখ বলাে গুঁড়িয়ে দিয়ে চাষির ভিটে ? 


    বেগুন পাতার বাসা ছিড়ে টুনটুনিদের 

    উল্টে ফেলে দুঃখী মায়ের ভাতের হাঁড়ি 

    হে দেবতা , বলাে তােমার কী আনন্দ , 

    কী মজা পাও বাবুই পাখির ঘর উড়িয়ে ? 


    রামায়ণে পড়েছি যার কীর্তিগাথা 

    সেই মহাবীর হনুমানের পিতা তুমি ? 

    কালিদাসের মেঘদূতে যার কথা আছে

    তুমিই নাকি সেই দয়ালু মেঘের সাথী ? 


    তবে এমন নিঠুর কেন হলে বাতাস 

    উড়িয়ে নিলে গরিব চাষির ঘরের খুঁটি 

    কিন্তু যারা লােক ঠকিয়ে প্রাসাদ গড়ে 

    তাদের কোনাে ইট খসাতে পারলে নাতাে ।


    হায়রে কতাে সুবিচারের গল্প শুনি , 

    তুমিই নাকি বাহন রাজা সােলেমানের 

    যার তলােয়ার অত্যাচারীর কাটতাে মাথা

    অহমিকার অট্টালিকা গুড়িয়ে দিতাে । 


    কবিদের এক মহান রাজা রবীন্দ্রনাথ 

    তােমার কাছে দাঁড়িয়েছিলেন করজোড়ে 

    যা পুরানাে শুষ্ক মরা , অদরকারি 

    কালবােশেখের একটি কুঁয়ে উড়িয়ে দিতে । 


    ধ্বংস যদি করবে তবে , শােনাে তুফান 

    ধ্বংস করাে বিভেদকারী পরগাছাদের 

    পরের শ্রমে গড়ছে যারা মস্ত দালান 

    বাড়তি তাদের বাহাদুরি গুঁড়িয়ে ফেলাে ।



    Tag: বোশেখ আল মাহমুদ কবিতা,  কবিতা বোশেখ,  Kobita Boshek Al Mahmud

                                   
    Previous Post Next Post
    আমাদের ফেসবুক পেইজে যুক্ত হতে ক্লিক করুন  

     

    আপনার নামের অর্থ জানতে ক্লিক করুন