প্রতিবেদন - কলেজ গ্রন্থাগার সংক্রান্ত প্রতিবেদন

প্রতিবেদন - কলেজ গ্রন্থাগার সংক্রান্ত প্রতিবেদন, কলেজ গ্রন্থাগার সংক্রান্ত প্রতিবেদন,প্রতিবেদন রচনা, প্রতিবেদন কি, লাইব্রেরি জরিপ করে প্রতিবেদন

    কলেজ গ্রন্থাগার সংক্রান্ত প্রতিবেদন 

    তারিখ
    বরাবর 
    অধ্যক্ষ , 
    প্রভাতফেরী মহাবিদ্যালয় কুড়িগ্রাম । 

    বিষয় : কলেজ গ্রন্থাগার সংক্রান্ত প্রতিবেদন । 
    সূত্র : প্র.ম. / ২৯ ( ১১ ) / ১৬

    জনাব , 
    উপযুক্ত সূত্র ও বিষয়ের আলােকে প্রভাতফেরী মহাবিদ্যালয়ের লাইব্রেরি সরেজমিনে জরিপ করে লাইব্রেরি বর্তমান অবস্থা সম্পর্কিত তথ্যাবলি আপনার সদয় অবগতির জন্য প্রতিবেদন হিসেবে পেশ করছি । 

    ১. কলেজ প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পরপর কলেজ লাইব্রেরি স্থাপিত হলেও বর্তমানে লাইব্রেরির অবস্থা খুবই করুণ । বইয়ের সংখ্যাও প্রয়ােজনের তুলনায় অনেক কম । তার ওপর রয়েছে নানা অনিয়ম ও অব্যবস্থাপনা । কলেজ উন্নয়নের সাথে সাথে কলেজ লাইব্রেরির উন্নয়ন মােটেও হয়নি । ছাত্রীর সংখ্যা এবং বইয়ের প্রয়ােজন । বাড়লেও বইয়ের সংখ্যা বাড়েনি , বরং কমেছে । অনেক শিক্ষক - শিক্ষার্থী বই নিয়ে ফেরত দেননি । গ্রন্থাগারিক অনেক বই খুঁজে পাচ্ছেন না , বইয়ের হিসাব মেলাতে পারছেন না । কলেজ থেকে প্রতিবছর বইয়ের জন্য টাকা বরাদ্দ থাকার কথা থাকলেও কলেজের আর্থিক দুরবস্থার জন্য বরাদ্দ দেওয়া হয় না । বর্তমানে কলেজের বইয়ের সংখ্যা মােট ২২৫। যা প্রয়ােজনের তুলনায় একেবারেই অপ্রতুল । 

    ২. পাঠ্য বইয়ের বাইরেও মানসিক বিকাশের জন্য শিক্ষার্থীদের জ্ঞান - বিজ্ঞান ও শিল্প - সাহিত্যের নানা শাখার বই পড়া উচিত । অথচ কলেজ গ্রন্থাগারে থাকা বইয়ে সে রকম বৈচিত্র্য সামান্যই । ছাত্রীদের পাঠদান ও পাঠগ্রহণের স্বার্থে প্রয়ােজনীয় সহায়ক বই থাকা দরকার । কলেজ লাইব্রেরিতে রেফারেন্স বইয়ের বড়ই অভাব । তা ছাড়া কলেজ গ্রন্থাগারের বইয়ের বিষয় , সংখ্যা ও মানের মধ্যেও সংগতি নেই । এর কারণ কলেজে গ্রন্থাগারিকের পদটি শূন্য । তথ্যবিজ্ঞানের প্রভাষক অতিরিক্ত দায়িত্ব হিসেবে গ্রন্থাগারিকের দায়িত্ব পালন করেন । ফলে তিনি প্রয়ােজনীয় সময় দিতে পারেন না । 

    ৩. লাইব্রেরির বই রক্ষণাবেক্ষণে বৈজ্ঞানিক কোনাে পদ্ধতি অবলম্বন করা হয় না । কলেজ লাইব্রেরিতে কাটল । নেই , বই ইস্যু এবং ফেরত নেওয়ার ব্যাপারেও প্রচুর অব্যবস্থা রয়েছে । 
    প্রয়ােজনীয় সুপারিশসমূহ : 
    ১. শিক্ষক - শিক্ষার্থীদের প্রয়ােজন মেটাতে বিভিন্ন বিষয়ে উন্নতমানের পর্যাপ্ত সংখ্যক বই ক্রয় করে করে । লাইব্রেরিকে সমৃদ্ধ করা প্রয়ােজন । 
    ২. কলেজ লাইব্রেরিতে বইয়ের জন্য পর্যাপ্ত অর্থ বরাদ্দ দিতে হবে । 
    ৩ , সরকারি ও বিভিন্ন বেসরকারি সংস্থা থেকে অনুদান হিসেবে লাইব্রেরির জন্য বই সংগ্রহ করতে হবে ।
    ৪. গ্রন্থাগারিকের শূন্য পদে অবিলম্বে লােক নিয়ােগ দেওয়া জরুরি । 
    ৫. বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে বই রক্ষণাবেক্ষণের জন্য দশমিক পদ্ধতিতে পুস্তকের তালিকা প্রণয়ন করতে হবে । 
    ৬ , কার্ড ইস্যু ছাড়া কলেজ লাইব্রেরি থেকে বই ইস্যু করা যাবে না । বই ইস্যু করার পর নির্দিষ্ট সময়ে বই ফেরত নেওয়ার ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে হবে । 
    ৭. গ্রন্থাগারের জন্য একটি কম্পিউটার ক্রয় করা প্রধান কর্তব্য হিসেবে দাঁড়িয়েছে । 
    ৮ , কলেজ গ্রন্থাগার তত্ত্বাবধানে সচেষ্ট হতে হবে । এজন্য শক্তিশালী একটি কমিটি গঠন করা দরকার । 
    ৯. ছাত্রীদের কাছ থেকে কলেজ গ্রন্থাগারের জন্য বার্ষিক চাদা নিতে হবে । কোনাে অবস্থাতেই চাঁদা মওকুফ করা যাবে না । 

    বিনীত 
    কায়েস রহমান 
    গ্রন্থাগারিক 
    প্রভাতফেরী মহাবিদ্যালয় , কুড়িগ্রাম ।


    tag: প্রতিবেদন - কলেজ গ্রন্থাগার সংক্রান্ত প্রতিবেদন, কলেজ গ্রন্থাগার সংক্রান্ত প্রতিবেদন,প্রতিবেদন রচনা, প্রতিবেদন কি, লাইব্রেরি জরিপ করে প্রতিবেদন 
    Previous Post Next Post

    👇 সকল ক্লাসের এসাইনমেন্ট নোটিফিকেশন আকারে সহজে পেতে ডাউনলোড করুন আমাদের এপ্লিকেশন 

    আমাদের ফেসবুক পেইজে যুক্ত হতে ক্লিক করুন