রচনা |বাংলা ভাষায় বিজ্ঞান চর্চা

 
রচনা |বাংলা ভাষায় বিজ্ঞান চর্চা

       
       

    বাংলা ভাষায় বিজ্ঞান চর্চা

    (সংকেত: ভূমিকা; মাতৃভাষার প্রয়োজনীয়তা; বিজ্ঞান চর্চায় বাংলা ভাষার গুরুত্ব; বিদেশি ভাষায় বিজ্ঞান চর্চার অসুবিধা; বাংলা ভাষায় বিজ্ঞান চর্চার সুবিধা; বাংলা ভাষায় বিজ্ঞান চর্চার সীমাবদ্ধতা; বাংলা ভাষায় বিজ্ঞান চর্চায় করণীয়; উপসংহার।)

    ভূমিকা:

     মানুষের জীবনে মাতৃভাষার কোনো বিকল্প নেই। মাতৃভাষায় মনের ভাব প্রকাশ করার মধ্যে যে আনন্দ ও তৃপ্তি আছে তা বিদেশি ভাষায় কখনো পাওয়া যায় না। বাংলা আমাদের মাতৃভাষা। ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলনের মাধ্যমে অর্জিত ও প্রতিষ্ঠিত এই ভাষা বর্তমান বিশ্বে দারুণভাবে সমাদৃত। সর্বক্ষেত্রে বাংলা ভাষার প্রয়োগের ধারাবাহিকতায় বর্তমানে বাংলাদেশে বিজ্ঞান চর্চাও হচ্ছে বাংলা ভাষায়। বর্তমান যুগ হচ্ছে বিজ্ঞানের প্রসারতার যুগ। বিজ্ঞানকে উপেক্ষা করে কোনো জাতি উন্নতির দিকে যাত্রা করতে পারে না। এরই ক্রমধারায় বাংলাদেশেও বিজ্ঞান চর্চার ব্যাপক প্রবণতা লক্ষ্য করা যায়। বর্তমানে এ দেশে বাংলা ভাষায় বিজ্ঞান চর্চা ব্যাপকভাবে প্রসারিত।

    মাতৃভাষার প্রয়োজনীয়তা:

    ‘নানান দেশের নানান ভাষা
    বিনে স্বদেশি ভাষা, মিটে কি আশা?’
    _রামনিধি গুপ্ত
    মানুষ তার মাতৃভাষার প্রতি চরম শ্রদ্ধাশীল। মাতৃভাষা মানুষ প্রকৃতিগতভাবেই আয়ত্ত্ব করে বলে সেই ভাষায় অর্জন করা সবকিছুই তার কাছে অনেক আপন মনে হয়। শিক্ষার জন্য প্রয়োজন মনের স্বাভাবিক বিকাশের উপযুক্ত মাধ্যম। এক্ষেত্রে মাতৃভাষার চেয়ে উত্তম কোনো মাধ্যম হতে পারে না। জ্ঞান-বিজ্ঞান চর্চার ক্ষেত্রে মাতৃভাষা সবচেয়ে উপযোগী ভূমিকা পালন করে। একমাত্র মাতৃভাষাই পারে প্রাণের সাথে ভাবের মিলন ঘটাতে। বিদেশি ভাষায় কখনো একজন শিক্ষার্থীর মনের ভাব যথাযথভাবে ফুটে উঠে না। মাতৃভাষার আকুলতা এবং ভাবদ্যোতনা কোনো ভাষার পক্ষে পূরণ করা সম্ভব না। তাই বিজ্ঞান চর্চায় মাতৃভাষা প্রয়োগের প্রয়োজনীয়তা অপরিসীম।

    বিজ্ঞান চর্চায় বাংলা ভাষার গুরুত্ব: 

    বর্তমান আধুনিক সভ্যতার যুগে বিজ্ঞান মানব জীবনের একটি অপরিহার্য অংশ। যথাযথ বিজ্ঞান চর্চার মাধ্যমে প্রতিটি জাতি উন্নতির শিখরে আরোহণ করার যোগ্যতা অর্জন করে। বাংলাদেশে বিজ্ঞান চর্চার ক্ষেত্রে বাংলা ভাষার ব্যবহার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। বাংলা ভাষায় বিজ্ঞান চর্চা করলে অপরিচিত বিষয়গুলির সাথে খুব সহজে এবং অল্প সময়ে পরিচিত হওয়া যায়। বাংলা ভাষাকে আশ্রয় করেই মূলত মানুষ তাদের চিন্তাশক্তি, বুদ্ধিমত্তা ও কল্পনা-শক্তিকে বিকশিত করে। এ দেশের মানুষের নিত্যদিনের ভাবের আদান-প্রদান ও আনন্দ-বেদনার প্রকাশ ঘটে বাংলা ভাষায়। তাই বিজ্ঞান চর্চার ক্ষেত্রেও বাংলা ভাষাই পারে তাদেরকে সর্বোচ্চ সহায়তা করতে। বাংলা ভাষায় বিজ্ঞান চর্চা করার ফলে এ দেশের শিক্ষার্থীরা সহজাত উপায়ে প্রতিটি বিষয় ভালোভাবে বুঝতে ও উপলব্ধি করতে পারে। শিক্ষা যেহেতু মানুষের একটি মৌলিক অধিকার সেহেতু কৃত্রিমতার আশ্রয় না নিয়ে নিজের সহজাত ভাষায় জ্ঞান চর্চা করা অধিক ফলপ্রসূ। সর্বোপরি বাঙালির জীবনে বিজ্ঞান চর্চার ক্ষেত্রে বাংলা ভাষার গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা অনস্বীকার্য।

    বিদেশি ভাষায় বিজ্ঞান চর্চার অসুবিধা:

     বিদেশি ভাষায় বিজ্ঞান চর্চা যেকোনো শিক্ষার্থীর জন্যই অনেকটা অসাধ্য সাধন করার মতো একটি ব্যাপার। বিদেশি ভাষায় বিজ্ঞান চর্চা করার ক্ষেত্রে প্রধানত যে সব অসুবিধার সম্মুখীন হতে হয় তা নিম্নরূপ-

    - বিজ্ঞান চর্চা শুরু করার আগে সংশ্লিষ্ট বিদেশি ভাষা শিখে নিতে হয়।

    - বিদেশি ভাষায় বিজ্ঞান শিখা ও বুঝা কষ্টসাধ্য।

    - বিদেশি ভাষায় বিজ্ঞান চর্চা করলে শিক্ষার্থীর দৈহিক ও মানসিক শক্তির যথেষ্ট অপচয় হয়।

    - অত্যধিক পরিশ্রম করেও অনেক সময় আশানুরূপ ফল পাওয়া যায় না।

    - বিদেশি ভাষার যথার্থ ব্যবহার না জানায় অনেকেই জ্ঞানার্জনের উৎসাহ হারিয়ে ফেলে।

    - বিদেশি ভাষার আধিপত্য অনেক সময় মনোজগতে বিদেশিমুখিতার জন্ম দেয়।

    - বিজ্ঞান চর্চায় বিদেশি ভাষার প্রয়োগ শিক্ষার্থীদেরকে নিজস্ব ইতিহাস ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি থেকে দূরে সরিয়ে দেয়।

    - মাতৃভাষা ব্যতিত অন্য কোনো ভাষায় জ্ঞান চর্চা করলে বিজ্ঞানের মতো একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় শিক্ষার্থীদের কাছে দুর্বোধ্য রয়ে যায়। ফলে দেশের জাতীয় অগ্রগতি বাধাগ্রস্ত হয়।

    - বিদেশি ভাষা পুরোপুরি নিজের আয়ত্ত্বে না আনতে পারলে বিজ্ঞানের অনেক বিষয়ই অজানা থেকে যায়।

    বাংলা ভাষায় বিজ্ঞান চর্চার সুবিধা: বাংলাদেশের বিজ্ঞানপ্রেমী শিক্ষার্থীদের মাতৃভাষা বাংলা। কাজেই তাদেরকে বাংলা ভাষায় বিজ্ঞান চর্চার সুযোগ করে দিলে তারা দেশের প্রযুক্তিগত অগ্রযাত্রায় শামিল হতে পারে। নিন্মে বাংলা ভাষায় বিজ্ঞান চর্চার নানাবিধ সুবিধা বর্ণিত হলো-

    - বাংলাভাষায় বিজ্ঞান চর্চার মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা দেশ ও জাতিকে বিজ্ঞানে সমৃদ্ধশালী করার ব্যাপারে আশাবাদী হয়ে উঠতে পারে।

    - স্বদেশের মাটি ও মানুষের প্রতি শ্রদ্ধাবোধ ও ভালোবাসা বজায় থাকে।

    - বাংলা এ দেশের শিক্ষার্থীদের সহজাত ভাষা হওয়ায় বিজ্ঞানের প্রতিটি জটিল বিষয়কে তারা সহজভাবে বুঝতে ও ব্যাখ্যা করতে পারে।

    - ভাষা শিক্ষার জন্য আলাদা সময় ব্যয় করতে হয় না।

    - বাংলা ভাষার সাথে আন্তরিক সম্পর্কের কারণে তুলনামূলক কম পরিশ্রমে অধিক জ্ঞানার্জন সম্ভব।

    - নিজস্ব ভাষা সহজবোধ্য হওয়ায় শিক্ষার্থীরা বিজ্ঞান চর্চায় অনেক বেশি উৎসাহী হয়ে উঠে।

    - বাংলা ভাষায় বিজ্ঞান চর্চার মাধ্যমে এ দেশের সাধারণ ও অল্পশিক্ষিত লোকদেরকেও আধুনিক বিজ্ঞানের জ্ঞান চর্চার আওতায় নিয়ে আসা সম্ভব।

    বাংলা ভাষায় বিজ্ঞান চর্চার সীমাবদ্ধতা: 

    বাংলা ভাষায় বিজ্ঞান চর্চা বাংলাদেশের জাতীয় জীবনে উন্নতির একটি কার্যকর উপায়। কিন্তু এ ক্ষেত্রে বেশ কিছু সীমাবদ্ধতা ও সমস্যা রয়েছে। বাংলা ভাষায় বিজ্ঞান চর্চার প্রথম ও প্রধান অন্তরায় হচ্ছে যথেষ্ট পরিমাণ পরিভাষার অভাব। বিজ্ঞান শিক্ষার এমন অনেক শব্দ ও প্রত্যয় রয়েছে যার যথাযথ বাংলা করা খুবই কঠিন। সারাবিশ্বে সাধারণত ইংরেজি ভাষায় জ্ঞান বিজ্ঞান প্রচলিত থাকায় সব বিষয়ের বাংলা রূপ হঠাৎ করে শিক্ষার্থীরা বুঝে উঠতে পারে না। কলা ও বাণিজ্য শাখার বিষয়গুলো বাংলা ভাষায় উপস্থাপন করা যতটা সহজ বিজ্ঞানের ক্ষেত্রে সেটি প্রায় অসম্ভব। তবে যথাযথ পরিভাষা তৈরি করার মাধ্যমে এই সমস্যা দূর করা যেতে পারে। বাংলা ভাষায় বিজ্ঞান চর্চা করতে গেলে উপযুক্ত বইয়ের প্রয়োজন আছে। কিন্তু বাংলা ভাষায় বিজ্ঞান বিষয়ক উচ্চতর বইয়ের সংখ্যা খুবই কম। বাংলা ভাষায় বিজ্ঞান বিষয়ক উল্লেখযোগ্য বই তেমন রচিত হয়নি বললেই চলে। বিদেশি ভাষা জ্ঞান কাজে লাগিয়ে বাংলা ভাষায় বেশি করে বিজ্ঞান বিষয়ক বই লিখে এ সমস্যা দূর করা সম্ভব।

    বাংলা ভাষায় বিজ্ঞান চর্চায় করণীয়: 

    নানা ধরণের সীমাবদ্ধতা ও ত্রুটির কারণে বাধাগ্রস্ত হচ্ছে বাংলা ভাষায় বিজ্ঞান চর্চা। এতে করে পিছিয়ে পড়ছে শিক্ষার্থী তথা গোটা জাতি। সুতরাং এই সীমাবদ্ধতা দূর করা অপরিহার্য। এক্ষেত্রে প্রথম এবং প্রধান করণীয় হচ্ছে নীতি নির্ধারকদের উদ্যোগে বিপুল পরিমাণে বিজ্ঞান বিষয়ক বই বাংলায় অনুবাদ করা। অনেক বিদেশি শব্দের যথাযথ পরিভাষা পাওয়া যায় না। তাই যথেষ্ট পরিমাণ পরিভাষা তৈরি করতে হবে। শিক্ষার্থীদের মানসম্মত অনুবাদগ্রন্থ তুলে দেওয়ার মাধ্যম নিজের ভাষায় বিজ্ঞান চর্চার ব্যাপারে শিক্ষার্থীদের উদ্বুদ্ধ করতে হবে। সর্বোপরি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জগতে বাংলা ভাষার ব্যবহার নিশ্চিত করা এখন সময়ের দাবি।

    উপসংহার: 

    সাম্প্রতিককালে বাংলাদেশের মানুষের জীবনের সর্বক্ষেত্রেই মাতৃভাষা বাংলার ব্যাপক ব্যবহারের প্রচেষ্টা চলছে। এরই ধারাবাহিকতায় বাংলা ভাষায় বিজ্ঞান চর্চার বিষয়টি অগ্রাধিকার পায়। কারণ বর্তমান আধুনিক যুগে জ্ঞান-বিজ্ঞান চর্চায় পিছিয়ে থাকা কোনো জাতির পক্ষে উন্নতির ধারায় টিকে থাকা সম্ভব না। তাছাড়া, মাতৃভাষার মাধ্যমে শিক্ষাদান ও অর্জনই হচ্ছে সবচেয়ে সহজ ও ফলদায়ক পদ্ধতি। কেননা জীবন ও শিক্ষার সমন্বয় সাধন করতে পারে একমাত্র মাতৃভাষা। বাংলা ভাষায় বিজ্ঞান চর্চা তাই অপরিসীম গুরুত্ব বহন করে।

    0/Post a Comment/Comments

    Previous Post Next Post