(হাদিস অনুযায়ী) কেমন ছেলেকে বিয়ে করা উচিত | ইসলামে কেমন ছেলে বিয়ে করা উচিত

  

কেমন ছেলে বিয়ে করা উচিত

আসসালামু আলাইকুম প্রিয় দ্বীনি ভাই ও বোনেরা সবাই কেমন আছেন। আসা করি সবাই আল্লাহর রহমতে ভালো আছেন। বন্ধুরা আজকে আমরা তোমাদের ইসলামিক বিয়ের ক্ষেত্রে কেমন ছেলে বিয়ে করা উচিত এ বিষয়ে কিছু দিকনির্দেশনা শেয়ার করবো আসা করি তোমাদের উপকারে আসবে।

বিবাহ একটি ইবাদত। মানবজাতির অস্তিত্বের সাথে সম্পর্কিত একটি বিষয়। এর মাধ্যমে দুটি অচেনা প্রান এমন হয়ে যায়, যেন তারা জনম জনমের চেনা। তাই এক্ষেত্রে উভয় পক্ষকেই পরখ বা যাচাই-বাছাই  করা হয়, এবং তা করার সুযোগ ও আছে। ঠিক তেমনি ভাবে মেয়ে বিবাহ দেওয়ার ক্ষেত্রে ছেলে কেমন হবে এবিষয়ে কনে পক্ষের নিবিড় দৃষ্টি দেওয়া জরুরী।


       
       

    কেমন ছেলে বিয়ে করা উচিত

    ১. ছেলে সৎ ও খোদাভীরু দেখে বিবাহ দেওয়া। 

    ২.পাত্রের বংশ উন্নত দেখে বিবাহ দেওয়া। 

    ৩.পাত্র মুসলমান হওয়া।এবং তা মুসলিম নারীর বিবাহ এর জন্য শর্ত। অর্থাৎ কাফের এর সাথে মুসলিম নারীর বিবাহ হবেনা।

    ৪.ধর্মপরায়ণতা দেখে বিবাহ দেওয়া। 

    ৫.সম্পদশালীতা সমমানের হওয়া। তা এভাবে যে ধনী নারী একে নিঃস্ব ও কাঙ্গাল এর কাছে না দেওয়া।তবে মহরের নগদ অংশ প্রদান ও ভরণপোষনে সক্ষম হলে তাকেও সমপর্যায়ের গণ্য করা হবে।

    ৬.পাত্র ও পাত্রীর বয়সের মধ্যে সামঞ্জস্য থাকা। এবং কনের বয়স থেকে পাত্রের বয়স হালকা বেশী হওয়া উত্তম। 

    ৭.হাফিজ সাহেব দেখে বিবাহ দেওয়া। দেখুন বুখারী শরীফ ৫০৩০ নং হাদিস।

    তবে ধর্মপরায়ণতা এর দিক কে প্রাধান্য দেওয়া হবে।দেখুন বুখারী শরীফ ৫১২০ নং হাদিস।

    এ বিষয়ে বিস্তারিত জানতে দেখুন আহকামে জিন্দেগী ৩৯৭ নং পৃষ্ঠা।


    টাগঃ কেমন ছেলেকে বিয়ে করা উচিত (হাদিস অনুযায়ী),  ইসলামে কেমন ছেলে বিয়ে করা উচিত 

                                   
    Previous Post Next Post
    আমাদের ফেসবুক পেইজে যুক্ত হতে ক্লিক করুন  

     

    আপনার নামের অর্থ জানতে ক্লিক করুন