পুরুষাঙ্গের চুলকানি দূর করার উপায় | পুরুষাঙ্গের চুলকানি দূর করার ক্রিম | রানের চিপায় চুলকানি দূর করার ক্রিম

পুরুষাঙ্গের চুলকানি দূর করার উপায় | পুরুষাঙ্গের চুলকানি দূর করার ক্রিম | রানের চিপায় চুলকানি দূর করার ক্রিম


আসসালামু আলাইকুম প্রিয় পাঠকবৃন্দ বন্ধুরা আপনাদের সবাইকে Educationblog24.Com এর পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা ও স্বাগতম। আশা করি আল্লাহর অশেষ রহমতে আপনারা অনেক ভালো আছেন। 

প্রিয় বন্ধুরা আজকের আমাদের এই পোস্ট টা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটা পোস্ট। এই পোস্টে থাকছে পুরুষাঙ্গের চুলকানি প্রতিকারের উপায় ও ঔষধ সম্পর্কে বিস্তারিত গুরুত্বপূর্ণ প্রয়োজনীয় সকল তথ্য। যেটা জেনে আপনাদের সবারই কমবেশি অনেক উপকার হবে। 

প্রিয় পাঠকবৃন্দরা আপনারা অনেকেই জানেন, আবার অনেকেই জানেন না এই পুরুষাঙ্গের চুলকানি প্রতিকারের উপায় ছাড়াও অন্যান্য সব বিষয়গুলো৷ তাছাড়া পুরুষাঙ্গে চুলকানি দূর করার ক্রিম ও ঔষধ আছে সেটাও আজকে আপনাদের মাঝে তুলে ধরবো এই পোস্টের মাধ্যমে। প্রিয় বন্ধুরা আপনারা অনেকেই অনেক রকম ভাবে ইন্টারনেট সাহায্যে পুরুষাঙ্গের চুলকানির ঔষধ সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য খোঁজাখুজি করছেন। তাই আপনাদের সুবিধার জন্য আমরা এই পোস্টের মাধ্যমে আপনাদের মাঝে শেয়ার করবো পুরুষাঙ্গের চুলকানি দূর করার উপায়, পুরুষাঙ্গের চুলকানি দূর করার ক্রিম, রানের চিপায় চুলকানি দূর করার ক্রিম এই সকল বিষয় সম্পর্কে বিস্তারিত প্রয়োজনীয় গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা। আশা করি আমাদের পোস্টে দেওয়া গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পেয়ে আপনাদের অনেক উপকার করতে পারলাম। 


    পুরুষাঙ্গের চুলকানি দূর করার উপায়  

    আসুন আমরা পুরুষাঙ্গের চুলকানি দূর করার জন্য কিছু ঘরোয়া উপায় আছে সেগুলো সম্পর্কে বিস্তারিত গুরুত্বপূর্ণ তথ্য জেনে আসি —

    ★বেকিং সোডা দিয়ে গোসল— ত্বকে ছত্রাক সংক্রমণের কারনে চুলকানি হলে এবং তার পাশাপাশি আরো কিছু চুলকানির ক্ষেত্রে বেকিং সোডা অত্যন্ত কার্যকরী। 

    ★নারিকেল তেলের ব্যবহার — ছত্রাকের সংক্রমণ রোধে শরীর ও গোপনাঙ্গে নারিকেল তেল ব্যাবহার করা যেতে পারে। এটি চুলকানি দূরীকরণে বেশ কার্যকরী। 

    ★প্রোবায়োটিক খাবার— প্রোবায়োটিক খাবারগুলো ত্বকের ছত্রাকের ক্ষেত্রেও অনেক কার্যকরী। প্রোবায়োটিক খাবারগুলো হলো- দই, কম্বুচা, কিচমিচ। 

    ★রঙীন ও বেশি সুগন্ধিযুক্ত টয়লেট টিস্যু ও সাবান যৌনাঙ্গে ব্যবহার করবেন না।

    ★ভেজা কাপড় পরে বেশিক্ষণ থাকবেন না। গোসল বা ব্যায়ামের পর যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ভেজা কাপড়টি পাল্টে নিবেন।

    ★একাধিক ব্যক্তির সাথে যৌন সহবাস পরিত্যাগ করুন। 

    ★সীডার ভিনিগার — গরম জলের সাথে ২ টেবিল চামচ সীডার ভিনিগার মিশিয়ে যৌনাঙ্গ ভালভাবে ধুয়ে ফেলতে হবে। পুরুষদের যৌনাঙ্গের চুলকানি থেকে নিস্তার পেতে সপ্তাহে দুইবার এই মিশ্রণের ব্যবহার করতে হবে।

    ★ঠান্ডা ঠান্ডা বরফ — চুলকানি থেকে তাৎক্ষনিক রেহাই এর জন্য বরফ বা বরফ-ঠান্ডা জলের সেঁক দিতে হবে। রাতের বেলা যখন এই চুলকানির তীব্রতা খুব বৃদ্ধি পায় তখন এই প্রতিকারটি খুবই কার্যকারী। 

    ★টাবের জলে তুলসী পাতা দিন। আধা ঘন্টা পরে নিজেকে ওই জলে ভিজিয়ে নিন। তুলসীপাতায় উপস্থিত বৈশিষ্ঠগুলি, ক্রমবর্ধনশীল ব্যাকটেরিয়ার সাথে লড়ে। এই যৌনাঙ্গে চুলকানির প্রতিকারটি, নারী পুরুষ উভয়েই ব্যবহার করে দেখতে পারেন


    পুরুষাঙ্গের চুলকানি দূর করার ক্রিম  

    আসুন আমরা পুরুষাঙ্গের চুলকানি দূর করার জন্য যে ক্রিমগুলো ব্যবহারের বেশী কার্যকরী সেটা সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে আসি৷ আপনার চুলকানি রোগের প্রতিকার পেতে ক্রিম ব্যবহারের জন্য আপনার আগে জানতে হবে আপনার চুলকানি কোন কারণে হয়, কেন হয় সব বিষয় আগে জেনে তারপর ঔষধ/ক্রিম ব্যবহার করবেন। 

    ★কর্টিসোন ক্রিম - নাভির নিচের চুল কাটার পর চুলকানি হতে পারে, এক্ষেত্রে কর্টিসোন ক্রিম ভালো কাজ করবে। কিন্তু, এই ক্রিমটি কখনো গোপনাঙ্গের ভিতরে ব্যাবহার করা যাবে না।

    ★বেশি চুলকানি হলে Lidocaine নামক জেল আক্রান্ত স্থানে লাগাতে পারেন। এতে সাময়িক আরাম হবে। কিন্তু পুরা সেরে যাবেনা। তাই ডাক্তারকে দেখাবেন।

    ★এছাড়া প্রদাহ কমাতে steroid cream ব্যবহার করা যেতে পারে।

    ★মেনোপোজের পর চুলকানি হলে ইস্ট্রোজেন সাপোজেটরি যোনিপথে ব্যবহার করা যেতে পারে। 


    রানের চিপায় চুলকানি দূর করার ক্রিম

    ★লেবুর রস ব্যবহার — লেবুর রসে আছে অ্যান্টি ইনফ্লেমেটরি উপাদান যা ত্বকের চুলকানি কমিয়ে দিতে সহায়তা করে। চুলকানির প্রতিকার পাওয়ার জন্য লেবুর রস ব্যবহার করাও খুব সহজ। ত্বকের যে স্থানে চুলকানি অনুভূত হচ্ছে সেখানে লেবুর রস লাগিয়ে শুকিয়ে ফেলুন। চুলকানি কমে যাবে কিছুক্ষণের মধ্যেই। 

    পেভিসন অথবা ডার্মাসল এন ব্যবহার করতে পারেন আশা করি ভালো ফল পাওয়া যায়। আমি নিজে এটা ব্যবহার করেছি অনেক ভালো একটা ক্রিম।

    ★ক্যালসিনেউরিন ইনহিবিটারস এই ওষুধ নির্দিষ্ট এলাকায় চুলকানির চিকিৎসা করতে ব্যবহার করা যেতে পারে।

    ★এন্টিডিপ্রেসান্টস— এন্টিডিপ্রেসান্টসগুলি শরীরের হরমোনগুলির উপর প্রভাব ফেলে এবং তাই চুলকানির থেকে পরিত্রাণ পেতে সহায়তা করে।


    বিঃদ্রঃ ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া কোন ধরনের ঔষধ সেবন বা ব্যবহার করবেন না। 


    Tag: পুরুষাঙ্গের চুলকানি দূর করার উপায়, পুরুষাঙ্গের চুলকানি দূর করার ক্রিম, রানের চিপায় চুলকানি দূর করার ক্রিম

                                   
    Previous Post Next Post
    আমাদের ফেসবুক পেইজে যুক্ত হতে ক্লিক করুন  

     

    আপনার নামের অর্থ জানতে ক্লিক করুন