বিয়ে করার সঠিক সময় ও বয়স | Biyer sothik boyos (কোরআন হাদিস অনুযায়ী)

বিয়ে করার সঠিক সময় ও বয়স | Biyer sothik boyos (কোরআন হাদিস অনুযায়ী)


আসসালামু আলাইকুম প্রিয় দ্বীনি ভাই ও বোনেরা সবাই কেমন আছেন। আসা করি সবাই আল্লাহর রহমতে ভালো আছেন। বন্ধুরা আজকে আমরা তোমাদের ইসলামিক বিয়ের সঠিক সময় ও বয়স  নিয়ে কিছু কথা শেয়ার করবো। আসা করি তোমাদের উপকারে আসবে।

       
       

    বিয়ে করার সঠিক সময় ও বয়স

    তো কথা হলো বিবাহ যে কোন বয়সেই করা যায়। এখানে বলা যায় জন্ম হওয়ার পর থেকে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত বিবাহ করা বিবাহ দেওয়া যায়। আল্লাহ তায়ালা বলেন فانكحوا ماطاب لكم من النساء مثنى وثلثى وربع .

     তোমরা দুইজন  দুইজন  ও অথবা তিনজন তিনজন  অথবা চারজন চারজন বিবাহ কর। অর্থাৎ চারজন পর্জন্ত বিবাহের কথা বলা হয়েছে কিন্তু কোন বয়সে বিবাহ করতে হবে এবিষয়ে কোন আলোচনা নাই। তাহলে বুঝা গেল বয়স নির্ধারিত নয়। এবং রসুল( সঃ) আয়শা রাঃ কে ছয় বছর বয়সে বিবাহ করেন এবং নয় বছর বয়সে তার বাডীতে নেন।তাই ফিকহের কিতাবে তিন দিনের শিশু বিবাহের মাসআলা আলোচনা হয়েছে। 


    বিবাহের উত্তম সময়

     হাদিস থেকে বিবাহের উত্তম সময় সম্পর্কে  পাওয়া যায়।

    বুখারী শরীফের ৫০৭০নং হাদিস  قال النبي صلى الله عليه وسلم من استطاع منكم الباءت فليتزوج.

    তোমাদের মধ্যে যারা বিবাহের ক্ষমতা রাখো সে যেন বিবাহ করে।অর্থাৎ যৌবনকাল হয় এবং স্ত্রীর ভরণপোষণের ভার নিতে পারো,তাহলে তোমাদের কর্তব্য হলো বিবাহ করে নেওয়া।আর ফিকহের এ মাসআলা ও আলোচনা হয়েছে যে ব্যক্তির বয়স যৌবনকাল এবং তার টগবগে যার ধরুন সে বিবাহ না করলে গুনাহের নধ্যে পতিত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে,তার জন্য বিবাহ করা ফরজ। আল্লাহ তায়ালা সকলকে বিষয়টি ভালো ভাবে বুঝার তাওফিক দান করুন আমিন।


    বর্তমান সময়ে বিয়ের সঠিক বয়স 

    বিয়ে ও পরিবার এমন এক সামাজিক ব্যাপার, যার জন্য শুধু মানসিক প্রস্তুতি থাকলেই হয় না, প্রাকৃতিকভাবে শরীরকেও প্রস্তুত হতে হয়। মনোচিকিৎসক আহমেদ হেলাল এ বিষয়ে বলেন, ‘মূলত বিয়ের জন্য বয়সটা গুরুত্বপূর্ণ না, শারীরিক ও মানসিক প্রস্তুতিটাই বেশি গুরুত্বপূর্ণ। কারণ এটা হলফ করে বলা সম্ভব না যে, যেহেতু আজ ১৭ বছর ১১ মাস ২৯ দিন হয়েছে সেহেতু কাল আপনার বিয়ের বয়স হবে। বিজ্ঞান বলে, ১৮ বছর বয়স হলে মানুষ শারীরিক ও মানসিকভাবে প্রস্তুত হয়। তাই এই বয়সকে আমি বিয়ের সর্বনিম্ন বয়স মনে করি।’

    বাংলাদেশের আইন অনুযায়ী বিয়ের ক্ষেত্রে পুরুষের জন্য কমপক্ষে ২১ বছর, আর নারীর জন্য ১৮ বছর করা হয়েছে। এর কম বয়সে বিয়ে করাকে আইনি সমর্থন দেওয়া হয় না এবং তা ‘বাল্যবিবাহ’ হিসেবে পরিগণিত হয়।


    Tag:বিয়ে করার সঠিক সময় ও বয়স, Biyer sothik boyos (কোরআন হাদিস অনুযায়ী) 

                                   
    Previous Post Next Post
    আমাদের ফেসবুক পেইজে যুক্ত হতে ক্লিক করুন  

     

    আপনার নামের অর্থ জানতে ক্লিক করুন