একাকিত্ব নিয়ে উক্তি | একাকিত্ব নিয়ে বাংলা উক্তি এসএমএস | একাকিত্ব নিয়ে স্ট্যাটাস | একা থাকা কষ্টের উক্তি মেসেজ পিকচার


       
       

    একাকিত্ব নিয়ে উক্তি  

    আসসালামুআলাইকুম সবাইকে Educationblog.Com এ স্বাগতম। 

    আশা করি আল্লাহুর অশেষ রহমতে আপনারা সবাই ভালো আছেন। আলহামদুলিল্লাহ আমরাও আল্লাহর অশেষ রহমতে ভালো আছি। 

    বন্ধুরা আজকে আপনাদের মাঝে Educationblog.Com নিয়ে আসলো একাকিত্ব নিয়ে উক্তি,  একাকিত্ব নিয়ে বাংলা উক্তি এসএমএস,  একাকিত্ব নিয়ে স্ট্যাটাস,  একা থাকা কষ্টের উক্তি মেসেজ পিকচার এই সকল কিছু আপনারা আমাদের এই পোস্ট থেকে পাবেন। আশা করি আপনাদের সুবিধা হবে আমাদের পোস্টে দেওয়া এমএমএস ও মেসেজ পিকচার গুলো পেয়ে। 


    একাকিত্ব নিয়ে বাংলা উক্তি এসএমএস  

    ★★সব থেকে কঠিনতম একাকীত্ব হল নিজেকে নিজের ভালো না লাগা ।


    ★★নিজেকে ভালো করে জানার জন্যও নিজেকে পর্যালোচনা করার জন্য একাকীত্বের প্রয়োজনীয়তা আছে।


    ★★মানুষের কখনও কখনও একা থাকা ভালো কারণ সেই সময়ে কেউ আপনাকে সেভাবে আঘাত করতে পারে না।


    ★★আমরা এই পৃথিবীতে সবাই একা এসেছি এবং একাই মৃত্যুবরণ করি ।অতএব নিঃসঙ্গতা অবশ্যই আমাদের জীবন যাত্রার একটি অংশ।


    ★★একাকীত্ব, মানুষকে নতুন করে নিজেকে আবিষ্কার করতে সুযোগ করে দেয়।


    ★★একা থাকা প্রতিটা সময় মানুষকে শক্ত ও সাহসী করে তোলে ।


    ★★মনকে সর্বদা শক্তিশালী করে রাখা যায় না , মাঝে মাঝে নিভৃতে একাকী থাকারও প্রয়োজন ;নিজের কান্না গুলির বহিঃপ্রকাশের জন্য।


    ★★একাকীত্ব একটি অভ্যাসে দাঁড়িয়ে গেলে সেখান থেকে বেরিয়ে আসা খুবই কষ্টসাধ্য।


    ★★অসৎ মানুষের সঙ্গ লাভ করার থেকে নিঃসঙ্গতা ও একাকীত্ব অধিকতর শ্রেয় ।


    ★★একাকীত্ব তখনই মানুষ অনুভব করে যখন সে নিজের সাথে কথা বলে কারণ তখন কেউ তার কথা শোনার মত থাকে না।


    ★★একাকীত্ব অপরের দ্বারা সৃষ্টি হয় না। এটি তখনই তৈরি হয় যখন নিজের অন্তঃসত্ত্বা বলে যে ,”তোমার জন্য ভাবার এ জগতে কেউ নেই”।


    ★★আমি একা থাকা অপছন্দ করি না কারণ আমি ভিড়ের মধ্যে অন্যতম একজন হতে চাইনা।


    ★★একাকী নিঃসঙ্গ জীবনের শ্রেষ্ঠ সঙ্গী একটি ভালো পুস্তক ।


    একাকিত্ব নিয়ে স্ট্যাটাস  


    একা থাকা কষ্টের উক্তি মেসেজ পিকচার 



    Tag: একাকিত্ব নিয়ে উক্তি,  একাকিত্ব নিয়ে বাংলা উক্তি এসএমএস,  একাকিত্ব নিয়ে স্ট্যাটাস,  একা থাকা কষ্টের উক্তি মেসেজ পিকচার 

    Previous Post Next Post