রেনিটিডিন কিসের ঔষধ - Ranitidin ঔষধের এর কাজ কি | Ranitidin ঔষধ খাওয়ার নিয়ম


প্রিয় বন্ধুগণ Educationblog.Com এর পক্ষ থেকে সবাইকে জানাই আসসালামু আলাইকুম। 

আশা করি আল্লাহুর অশেষ রহমতে আপনারা ভালো আছেন। 

আপনাদের সুবিধার জন্য আমরা এই পোস্টের মাধ্যমে নিয়ে এলাম ডাক্তারি পরামর্শ অনুযায়ী Ranitidin 150 ঔষধ খাবার নিয়ম এবং রেনিটিডিন ১৫০ ঔষধের কাজ ও Ranitidin 150 কোন রোগের ঔষধ। 

আশা করি আপনাদের অনেক উপকার হবে আমাদের দেওয়া সঠিক তথ্যটি থেকে ।


    রেনিটিডিন ১৫০ এর কাজ কি | প্যানটোনিক্স ১৫০ কিসের ঔষুধ

    ☠️☠️ রেজিস্টার চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া কোনো ঔষধ গ্রহন করবেন না। ☠️☠️


    প্রিয় পাঠক-পাঠিকাবৃন্দ এখানে আমরা আপনাদের ঔষধ বা রোগের ঔষধগুলোর ব্যাপারে প্রাথমিক ধারণা দিচ্ছি। আপনার মূল সমস্যা জানার জন্য অবশ্যই আপনাকে রেজিস্টার চিকিৎসকের কাছে যেতে হবে। রোগ সম্পর্কে সম্পূর্ন না জেনে শুধুমাত্র সাইট থেকে প্রাথমিক ধারণা নিয়ে কোনো ঔষধ গ্রহন করে আপনার শারীরিক কোনো সমস্যা হলে Educationblog.com এর কোনো অ্যাডমিন দায়ী নয়। ধন্যবাদ।


    রেনিটিডিন ১৫০ কিসের ওষুধ

    Oxat 20: Renitidine  150 এ রয়েছে যা  Renitidine Hydrocloride 150 প্রতিটি ট্যাবলেটে বহন করে।


    Ranitidin 150 ঔষধের কাজ কি

    নির্দেশনা/কোন সমস্যা রেনিটিডিন ১৫০ গ্রহণ করবেনঃ গ্যাস্টিক জাতীয় সমস্যা, পেপটিক আলসার ডিজিস, গ্যাস্ট্রোফিজিয়াল রিফ্লাক্স ডিজিস, তৈল চর্বি জাতীয় খাবারের কারণে সৃষ্ট আলসার, বিনাইন গ্যাস্ট্রিক ও ডিওডেনাল আলসার, রিফ্লাক্স ইসোফেগাইটিস, নন-স্টেরয়ডাল প্রদাহরোধী ঔষধ দ্বারা চিকিৎসার ফলে সৃষ্ট আলসার, ক্রনিক এপিসোডিক ডিসপেপসিয়া, জোলিঞ্জার-এলিসন সিনড্রোম, প্রসবকালীন সময়ে গ্যাস্ট্রিক এসিড নিঃসরণ কমানো (অতিরিক্ত এসিড নিঃসরণের প্রতিরোধক চিকিৎসায়) এবং শল্য চিকিৎসা এর ক্ষেত্রে নির্দেশিত।


    পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াঃ মাথাব্যথা, ডায়রিয়া, ক্লান্তিভাব। অন্যান্য পার্শপ্রতিক্রিয়া এর মধ্যে  রয়েছে হাইপারগ্লাইসেমিয়া, নিদ্রাহীনতা, তলপেটে ব্যাথা ও র্যাশ জাতীয় সমস্যা।


    Ranitidin ঔষধ খাওয়ার নিয়ম

    যাদের ক্ষেত্রে এ ঔষধ গ্রহন করা যাবেনাঃ গর্ভাবস্থায় এ ওষুধের ব্যবহারের ক্ষেত্রে সতর্কতা অমলম্বন করতে হবে। অতি প্রয়োজনীয় না হলে এ ঔষধ ব্যবহার থেকে বিরত থাকতে হবে। এছাড়াও Renitidine ঔষধ এর কোন উপাদানের প্রতি শারীরিক সংবেদনশীলতা থাকলে ওষুধ গ্রহণ থেকে বিরত থাকুন।


    ওষুধ খাবার নিয়মঃ রেজিস্টার্ড ডাক্তারের পরামর্শ মতো আপনার সঠিক সমস্যা জেনে তার পরামর্শ অনুযায়ী ওষুধ গ্রহণ করুন।


    সংরক্ষণঃ আলো থেকে দূরে ঠান্ডা ও শুষ্ক স্থানে 6°C তাপমাত্রার নিচে সংরক্ষণ করুন বাচ্চাদের নাগালের বাইরে রাখুন



    Tag: রেনিটিডিন কিসের ঔষধ,  Ranitidin ঔষধের এর কাজ কি,  Ranitidin ঔষধ খাওয়ার নিয়ম

    Previous Post Next Post

    👇 সকল ক্লাসের এসাইনমেন্ট নোটিফিকেশন আকারে সহজে পেতে ডাউনলোড করুন আমাদের এপ্লিকেশন 

    আমাদের ফেসবুক পেইজে যুক্ত হতে ক্লিক করুন