নির্ধারিত লক্ষ্য অর্জনে ও প্রয়োজনে বিকল্প লক্ষ্য বাস্তবায়নে লক্ষ্যের শ্রেণিবিভাগ অনুসারে এর রুপরেখা প্রণয়ন | এইচএসসি এসাইনমেন্ট ২০২২ গার্হস্থ্য বিজ্ঞান (৫ম সপ্তাহ) এসাইনমেন্ট -১ | ২০২২ সালের এইচএসসি ৫ম সপ্তাহের গার্হস্থ্য বিজ্ঞান (১ম পত্র) এসাইনমেন্ট সমাধান /উত্তর


    এইচএসসি এসাইনমেন্ট ২০২২ গার্হস্থ্য বিজ্ঞান (৫ম সপ্তাহ) এসাইনমেন্ট -১ 


    নির্ধারিত লক্ষ্য অর্জনে ও প্রয়োজনে বিকল্প লক্ষ্য বাস্তবায়নে লক্ষ্যের শ্রেণিবিভাগ অনুসারে এর রুপরেখা প্রণয়ন


    নির্ধারিত লক্ষ্য অর্জনে ও প্রয়ােজনে বিকল্প লক্ষ্য বাস্তবায়নে লক্ষ্যের শ্রেণিবিভাগ অনুসারে এর রূপরেখা প্রণয়ন করা হলাে :  

    √√গৃহ ব্যবস্থাপনার লক্ষ্যের ধারণা ও তাৎপর্য : গৃহ ব্যবস্থাপনার লক্ষ্যের ধারণা : গৃহব্যবস্থাপনায় লক্ষ্য হল পরিবারের সবার চাহিদা পূরণ করা , খাদ্য - বস্ত্র , আরাম , নিরাপত্তা , শিক্ষা , চিকিৎসা , বিনােদন ইত্যাদি মৌলিক বিষয়গুলাের নিশ্চয়তা বিধান করা । অর্থাৎ পরিবার যা চায় এবং যা করতে ও হতে ইচ্ছা করে তাই পরিবারের লক্ষ্য । সচেতন মূল্যবােধ থেকেই লক্ষ্য সৃষ্টি হয় । লক্ষ্য হল গৃহ ব্যবস্থাপনার পূর্বশর্ত । কারণ লক্ষ্যের উপর ভিত্তি করেই ব্যবস্থাপনার কার্যাবলি সম্পাদিত হয় । 


    G. R. Terry এর মতে লক্ষ্য হচ্ছে এমন একটা কাম্য বা উদ্দেশ্য যার নির্দিষ্ট পরিধি আছে এবং যা একজন ব্যবস্থাপক তথা গৃহিণীর কার্যাবলিকে নির্দেশ দান করে । লক্ষ্য স্থির করা না হলে ব্যবস্থাপনা সফল হতে পারে না । প্রত্যেক ব্যক্তি তথা পরিবারের মধ্যে ছােট বড় অনেক লক্ষ্য থাকে যা অর্জন করার জন্য তাদের কার্যাবলি নির্দিষ্ট পথে চলতে থাকে । কারণ লক্ষ্য অর্জন স্বয়ংক্রিয়ভাবে হয় না । লক্ষ্য অর্জন করতে কিছু কার্য সম্পাদন করতে হয় । এসব কাজের সমষ্টিই হল ব্যবস্থাপনা । গৃহের লক্ষ্যই যদি ঠিক না থাকে তাহলে গৃহব্যবস্থাপনাও এলােমেলাে ও অর্থহীন হয়ে পড়বে । কোনাে ব্যক্তি বা পরিবার যদি না জানে সে কী চায় তবে তার জীবনটাই বৈঠাবিহীন অর্থাৎ চালকহীন নৌকার মত দুলতে থাকে । এখানে ব্যবস্থাপনার লক্ষ্যকে নৌকার চালিকা শক্তি বৈঠার সাথে তুলনা করা হয়েছে । 


    গৃহ ব্যবস্থাপনার লক্ষ্যের তাৎপর্য :

    √লক্ষ্য বা উদ্দেশ্য সচেতনভাবে ধারণ করতে হবে । 

    √লক্ষ্য , মূল্যবােধ , বুদ্ধি থেকে সৃষ্ট । লক্ষ্য সুব্যক্ত ও সহজে বােধগম্য এবং ব্যাখ্যাও করা যায় । 

    √ লক্ষ্য ব্যক্তিগত জ্ঞান , দক্ষতা ও কর্ম মাচরণকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠে । 

    √ গৃহের সফলতা বা ব্যর্থতা লক্ষ্যের মাধ্যমে প্রকাশ পায় ।

    √ লক্ষ্যই ব্যবস্থাপনার দিক নির্দেশক  লক্ষ্য থাকলেই ব্যবস্থাপনার প্রশ্ন আসে নতুবা নয় । 


    নিজ লক্ষ্য অর্জনে লক্ষ্যের শ্রেণিবিভাগের প্রয়ােগ : 

    গবেষক নিকেল এবং ডরসী লক্ষ্যকে সময়ের আঙ্গিকে তিনভাগে ভাগ করেছেন । এ শ্রেণিবিভাগে সময়সীমাকে প্রাধান্য দেয়া হয়েছে । এ লক্ষ্যগুলাে হল :

    ১. দীর্ঘমেয়াদী বা প্রধান লক্ষ্য / দূরবর্তী লক্ষ্য , 

    ২. মধ্যবর্তী বা স্বল্পমেয়াদী লক্ষ্য ও . 

    ৩. তাৎক্ষণিক বা সহকারী লক্ষ্য / নিকটবর্তী লক্ষ্য ।


    ১. দূরবর্তী বা প্রধান লক্ষ্য ( Long termaim ) ; এ ধরনের লক্ষ্য স্থায়ী এবং সময় সাপেক্ষ । এ লক্ষ্য সব সময় সচেতন মনে বিরাজমান থাকে এবং মধ্যবর্তী স্বল্পমেয়াদী লক্ষ্য নির্ধারনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।মধ্যবর্তী লক্ষ্য অর্জনের মাধ্যমে চূড়ান্ত বা প্রধান লক্ষ্য বাস্তবায়ন সম্ভব হয় । প্রধান লক্ষ্য অর্জনের মাধ্যমে সফলতা প্রমাণিত হয় ।


    ২. মধ্যবর্তী বা স্বল্পমেয়াদী লক্ষ্য ( Intermediate aim ) : পরিবারকে চুড়ান্ত লক্ষ্য অর্জনের জন্য প্রায়ই স্বল্পমেয়াদী লক্ষ্য নির্ধারণ করতে হয় । যেমন পরিবারের একটি মেয়ে বা ছেলের দীর্ঘমেয়াদী লক্ষ্য হল উচ্চশিক্ষা লাভ করা । এই দীর্ঘমেয়াদী লক্ষ্য বাস্তবায়নের জন্য পরিবারটির মধ্যবর্তী লক্ষ্য হবে ভাল ফলাফল নিয়ে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় পাস করা । স্বল্প মেয়াদী লক্ষ্য দীর্ঘমেয়াদী লক্ষ্যের চেয়ে নির্দিষ্ট ও স্পষ্ট । এর জন্য অনেক বিকল্প থেকে সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণের প্রয়ােজন হয় । অনেক সময় অবস্থা ও পরিস্থিতির কারণেও স্বল্পমেয়াদী লক্ষ্য স্থির করতে হয় ।  


    ৩. নিকটবর্তী বা তাৎক্ষণিক লক্ষ্য ( Short term aim ) : ব্যবস্থাপনার সবচেয়ে নিকটতম উদ্দেশ্যকে তাৎক্ষণিক লক্ষ্য বলে । অর্থাৎ লক্ষ্য নির্ধারণের সাথে সাথেই অর্জন করা যায় । যেমন : গৃহিণী কোন পারিবারিক উৎসব উপলক্ষ্যে গৃহের পরিবেশ সুন্দর করে তুলতে চাইলেন । তার এই তাৎক্ষণিক লক্ষ্য পূরণের জন্য যখন তিনি ঘর ঝাড়মােছা করেন , আসবাবপত্রগুলাে সুন্দরভাবে বিন্যাস করেন , তাজা ফুল সংগ্রহ করেন ইত্যাদি তাৎক্ষণিক উদ্দেশ্য পূরণ করলেন ।  


    লক্ষ্য পরিবর্তনের কারণ : আর্থ - সামাজিক , প্রাকৃতিক দুর্যোগ , দৃষ্টিভঙ্গী ও মনােভাবের পরিবর্তনের কারণে লক্ষ্যের পরিবর্তন হতে পারে।যেমন - 

    √পারিবারিক জীবনচক্র ক্রমে ক্রমে লক্ষ্যের পরিবর্তন ঘটাতে পারে । 

    √ পরিবারের সদস্যদের মনােভাব , আয়ুহ কিংবা সুযােগ অনেক সময় নতুন লক্ষ্যের সৃষ্টি করে । 

    √লক্ষ্য স্থির করার পর যদি তা কষ্টসাধ্য এবং সঠিক মনে না হয় তা হলে লক্ষ্যের পরিবর্তন ঘটে ।

    √পারিবারিক বিপর্যয় , যেমন - মৃত্যু , দুর্ঘটনা , অসুস্থতা , বেকারত্ব , চাকুরিচ্যুতি ইত্যাদি কারণে লক্ষ্যের পরিবর্তন ঘটে । 

    √স্বল্পমেয়াদী লক্ষ্য অর্জনের চরম ব্যর্থতা ঘটলে দীর্ঘমেয়াদী লক্ষ্যে পরিবর্তন ঘটে । 

    √ কোনাে কারণে জীবনযাত্রা প্রণালীতে ব্যতিক্রম ঘটলে তা লক্ষ্যের পরিবর্তন ঘটায় ।


    ২০২২ সালের এইচএসসি ৫ম সপ্তাহের গার্হস্থ্য বিজ্ঞান  (১ম পত্র) এসাইনমেন্ট সমাধান /উত্তর



    Tag: এইচএসসি এসাইনমেন্ট ২০২২ গার্হস্থ্য বিজ্ঞান (৫ম সপ্তাহ) এসাইনমেন্ট -১,  ২০২২ সালের এইচএসসি ৫ম সপ্তাহের গার্হস্থ্য বিজ্ঞান  (১ম পত্র) এসাইনমেন্ট সমাধান /উত্তর, নির্ধারিত লক্ষ্য অর্জনে ও প্রয়োজনে বিকল্প লক্ষ্য বাস্তবায়নে লক্ষ্যের শ্রেণিবিভাগ অনুসারে এর রুপরেখা প্রণয়ন

    Previous Post Next Post

    👇 সকল ক্লাসের এসাইনমেন্ট নোটিফিকেশন আকারে সহজে পেতে ডাউনলোড করুন আমাদের এপ্লিকেশন 

    আমাদের ফেসবুক পেইজে যুক্ত হতে ক্লিক করুন