রাষ্ট্রের ধরন বিশ্লেষণসহ গণতন্ত্র সফল করার উপায় এবং সংসদীয় সরকারের গুণ ও ত্রুটি ব্যাখ্যাকরণ | এসএসসি ৫ম সপ্তাহের এসাইনমেন্ট ২০২১ উত্তর/সমাধান পৌরনীতি ও নাগরিকতা (এসাইনমেন্ট -৩) | ২০২১ সালের এসএসসি ৫ম সপ্তাহের পৌরনীতি ও নাগরিকতা এসাইনমেন্ট সমাধান/উত্তর


    এসএসসি ৫ম সপ্তাহের এসাইনমেন্ট ২০২১ উত্তর/সমাধান পৌরনীতি ও নাগরিকতা (এসাইনমেন্ট -৩)  


    রাষ্ট্রের ধরন বিশ্লেষণসহ গণতন্ত্র সফল করার উপায় এবং সংসদীয় সরকারের গুণ ও ত্রুটি ব্যাখ্যাকরণ


    শিরােনাম : রাষ্ট্রের ধরণ বিশ্লেষণসহ গণতন্ত্র সফল করার উপায় এবং সংসদীয় সরকারের গুণ ও কুটি ব্যাখ্যাকরণ 


    ‘ ক ’ নং প্রশ্ন : রাষ্ট্রের ধরণ বিশ্লেষণ । 

    উত্তর : রাষ্ট্র ও সরকার একটি আরেকটির পরিপূর্ণ শব্দ হিসেবে ব্যবহৃত হয় । কিন্তু দুটি এক মনে হলেও এদের মধ্যে পার্থক্য আছে । রাষ্ট্র হলাে একটি পূর্ণাঙ্গ ও স্থায়ী প্রতিষ্ঠান । এটি সার্বভৌম বা সর্বোচ্চ ক্ষমতার অধিকারী । আর সরকার রাষ্ট্র গঠনের চারটি উপাদানের ( জনসংখ্যা , ভূখণ্ড , সরকার ও সার্বভৌমত্ব ) মধ্যে একটি উপাদান মাত্র । পৃথিবীর সব রাষ্ট্র একই উপাদানের সমন্বয়ে গঠিত হলেও সব রাষ্ট্র ও সরকারব্যবস্থা একি রকমের নয় । আবার সময়ের পরিবর্তনের সাথে সাথে যেকোনাে দেশে রাষ্ট্র ও সরকারের স্বরূপ পরিবর্তিত হতে পারে । 


    রাষ্ট্রের ধরণের চিত্র উপস্থাপন : 

    বিশ্বে বিভিন্ন ধরনের রাষ্ট্রব্যবস্থা লক্ষ করা যায় । নিচের ছকে রাষ্ট্রের বিভিন্ন রূপ লক্ষ করি



    ‘ খ ’ নং প্রশ্ন : গণতন্ত্র সফল করার উপায় 

    উত্তর : গণতন্ত্র বাস্তবায়নের পথে অনেক প্রতিবন্ধকতা আছে । এসব প্রতিবন্ধকতা দূর করে গণতন্ত্রের সাফল্যের জন্য প্রয়ােজন শিক্ষিত ও সচেতন জনগােষ্ঠী , অর্থনৈতিক সাম্য ও ন্যায়ভিত্তিক সমাজব্যবস্থা , দক্ষ প্রশাসন এবং উপযুক্ত নেতৃত্ব । তাদেরকে ব্যক্তিগত , সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় জীবনের সকল ক্ষেত্রে গণতান্ত্রিক আচরণ করতে হবে । 

    এজন্য যা করা প্রয়ােজন তা হলাে 

    ১. নাগরিকদের পরমতসহিষ্ণু হতে হবে । সবাইকে মত প্রকাশের সুযােগ দিতে হবে । অন্যের মতকে শ্রদ্ধা করতে হবে এবং অধিকাংশের মতামতকে সবার মতামত হিসেবে মেনে নেওয়ার মানসিকতা থাকতে হবে ।

    ২. ব্যক্তিগত ও দলীয় স্বার্থপরতা পরিহার করতে হবে । এটি সকল নাগরিক ও রাজনৈতিক দলের জন্য প্রযােজ্য । কেবল বিরােধিতা করলে হবে না । 

    ৩. নিজের অধিকার আদায়ের পাশাপাশি অন্যের অধিকারকে সম্মান করতে হবে । নিজের অধিকার আদায় যেন অন্যের অধিকার ভঙ্গের কারণ না হয় , সে বিষয়ে সচেতন থাকতে হবে । 

    ৪. বিভিন্ন সম্প্রদায় এবং দলের মধ্যে সম্প্রীতি , সহযােগিতা ও সহনশীলতা বজায় রাখতে হবে । 

    ৫. ব্যক্তিস্বাতন্ত্রকে শ্রদ্ধা করতে হবে । সেই সাথে নাগরিকদের সুনাগরিকদের গুণাবলি অর্জন করতে হবে ।

    ৬. গণতন্ত্রের বাহন হচ্ছে নির্বাচন । নির্বাচন যে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হয় , সেজন্য নাগরিকদের প্রয়ােজনীয় সহযােগীতা দিতে হবে । 

    ৭. আইনের শাসন হলাে গণতন্ত্রের প্রাণ । এজন্য সবাইকে আইন মানতে হবে । আইনের চোখে সবাই সমান । অতএব , সকলের প্রতি সমান আচরণ করতে হবে । অর্থাৎ সমান অধিকার ও সুযােগ - সুবিধা দিতে হবে। 


    ‘ গ ’ নং প্রশ্ন : সংসদীয় সরকারের গুণ ও ক্রটি । 


    উত্তর : সংসদীয় সরকারের গুণ সংসদীয় বা মন্ত্রিপরিষদ শাসিত সরকারের যেসব গুণ রয়েছে তা নিম্নরূপ 

    ১. দায়িত্বশীল শাসনব্যবস্থা : সংসদীয় সরকার দায়িত্বশীল সরকার । এতে ক্ষমতাসীন ও বিরােধী দল উভয়ই তাদের কাজের জন্য জনগণের নিকট দায়ী থাকে ।

    ২. আইন ও শাসন বিভাগের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক : শাসন বিভাগের সদস্যগণ আইনসভার সদস্য হওয়ায় এ সরকারে আইন ও শাসন বিভাগের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক থাকে । 

    ৩. বিরােধী দলের মর্যাদা : এ সরকার ব্যবস্থায় বিরােধী দলকে বিকল্প সরকার মনে করা হয় । ফলে জাতীয় সংকটে ক্ষমতাসীন ও বিরােধী দল একসাথে আলাপ - আলােচনার মাধ্যমে সমস্যার সমাধান করতে পারে । বিরােধী দল হচ্ছে সংসদীয় ব্যবস্থার অবিচ্ছেদ্য অংশ । 

    ৪. সমালােচনার সুযােগ : এ সরকারে সংসদ সদস্যগণ বিশেষ করে বিরােধী দলের সদস্যগণ সংসদে বসে সরকারের কাজের সমালােচনা করার সুযােগ পায় । ফলে সরকার তার কাজে সংযত হয় ও ভালাে কাজ করার চেষ্টা করে । 

    ৫. রাজনৈতিক শিক্ষা দেয় : সংসদীয় সরকার জনমতের দ্বারা পরিচালিত হয় । জনমতকে অনুকূলে রাখার জন্য তাই সরকারি ও বিরােধী দল সবসময় তৎপর থাকে । সংসদে বিতর্ক হয় । এতে জনগণ রাজনৈতিকভাবে সচেতন হয় ।


    সংসদীয় সরকারের ত্রুটি 

    সংসদীয় পদ্ধতির সরকারের কিছু ত্রুটি রয়েছে । যথা 

    ১. স্থিতিশীলতার অভাব : সংসদীয় সরকার অস্থিতিশীল হতে পারে । মন্ত্রিসভা আইনসভার আস্থা হারালে অথবা সংসদে সংখ্যাগরিষ্ঠতার হেরফের হলে সরকারের পতন ঘটে । এ ধরনের পরিস্থিতি দেশকে অস্থিতিশীল করে তুলতে পারে । 

    ২. ক্ষমতার অবিভাজন : এ ধরনের সরকারে শাসন ও আইন প্রণয়ন ক্ষমতা একই স্থানে তথা মন্ত্রিপরিষদের হাতে থাকে বলে মন্ত্রীগণ স্বৈরাচারী হয়ে উঠতে পারে । এ জন্য সংসদীয় সরকারকে সংখ্যাগরিষ্ঠের স্বৈরাচার বলে আখ্যায়িত করা যায় । 

    ৩.অতি দলীয় মনােভাব : সংসদীয় সরকার মূলত দলীয় সরকার । এতে দলের সংখ্যাগরিষ্ঠতার উপর সরকারের গঠন ও স্থায়িত্ব নির্ভর করে । ফলে দলকে অত্যধিক গুরুত্ব দেওয়া হয় । ক্ষমতাসীন ও বিরােধী উভয় দলই চরম দলীয় মনােভাব নিয়ে কাজ করে । এছাড়া দলীয় সরকার হওয়ায় দলের সদস্যদের সন্তুষ্ট করার জন্য মেধা ও যােগ্যতা বিবেচনা না করে অনেককে মন্ত্রিসভায় অন্তর্ভুক্ত করা হয় । ফলে জাতীয় স্বার্থ ব্যাহত হয় । 

    ৪. সিদ্ধান্ত গ্রহণে বিলঃ এখানে যেকোনাে বিষয়ে বহু আলােচনা ও পরামর্শের পর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় । ফলে সিদ্ধান্ত গ্রহণে দেরি হয় । অনেক কাজই সময়মত করা সম্ভব হয় না ।



    ২০২১ সালের এসএসসি ৫ম সপ্তাহের পৌরনীতি ও নাগরিকতা এসাইনমেন্ট সমাধান/উত্তর Pdf


                           Click Here To Download 


    Tag: এসএসসি ৫ম সপ্তাহের এসাইনমেন্ট ২০২১ উত্তর/সমাধান পৌরনীতি ও নাগরিকতা (এসাইনমেন্ট -৩),  ২০২১ সালের এসএসসি ৫ম সপ্তাহের পৌরনীতি ও নাগরিকতা এসাইনমেন্ট সমাধান/উত্তর pdf, রাষ্ট্রের ধরন বিশ্লেষণসহ গণতন্ত্র সফল করার উপায় এবং সংসদীয় সরকারের গুণ ও ত্রুটি ব্যাখ্যাকরণ

    Previous Post Next Post

    👇 সকল ক্লাসের এসাইনমেন্ট নোটিফিকেশন আকারে সহজে পেতে ডাউনলোড করুন আমাদের এপ্লিকেশন 

    আমাদের ফেসবুক পেইজে যুক্ত হতে ক্লিক করুন