বাংলাদেশে অংশীদারী কারবারের তুলনায় এক মালিকানা ব্যবসা অধিক জনপ্রিয় ব্যাখ্যা কর | এইচএসসি বিএম এসাইনমেন্ট ২০২১ উত্তর/সমাধান ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা-১ (৬ষ্ট সপ্তাহ) এসাইনমেন্ট -৪ | ২০২১ সালের এইচএসসি (বিএম) ৬ষ্ট সপ্তাহের এসাইনমেন্ট সমাধান /উত্তর ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা-১


    এইচএসসি বিএম এসাইনমেন্ট ২০২১ উত্তর/সমাধান ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা-১ (৬ষ্ট সপ্তাহ) এসাইনমেন্ট -৪  


    বাংলাদেশে অংশীদারী কারবারের তুলনায় এক মালিকানা ব্যবসা অধিক জনপ্রিয় ব্যাখ্যা কর


    অংশীদারী কারবারের ধারণাঃ 

    সহজভাবে বলা যায় , একের অধিক ব্যক্তি মুনাফা অর্জনের উদ্দেশ্যে অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে যে ব্যবসায় গঠন করে তাকে অংশীদারি ব্যবসায় বলে । ব্যাপক অর্থে , কমপক্ষে দুই জন এবং সর্বোচ্চ বিশজন ( ব্যাংকিং ব্যবসায়ের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ দশজন ) ব্যক্তি মুনাফা অর্জন ও তা নিজেদের মধ্যে বণ্টনের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়ে স্বেচ্ছায় যে ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান গড়ে তােলে , তাকে অংশীদারি ব্যবসায় বলে । 

    ১৯৩২ সালের অংশীদারি আইন মােতাবেক অংশীদারি ব্যবসায় গঠিত , পরিচালিত ও নিয়ন্ত্রিত হয় । ১৮৯০ সালের বৃটিশ অংশীদারি আইন অনুসারে মুনাফা অর্জনের লক্ষ্যে যৌথভাবে পরিচালিত ব্যবসায়ে কতিপয় ব্যক্তির মধ্যে বিদ্যমান সম্পর্ককে অংশীদারি বলে । ১৯৩২ সালের অংশীদারি আইনের ৪ ধারায় বলা হয়েছে যে , সকলের দ্বারা বা সকলের পক্ষে একজনের দ্বারা পরিচালিত ব্যবসায়ের মুনাফা নিজেদের মধ্যে বন্টনের নিমিত্তে একাধিক ব্যক্তির  মধ্যে যে চুক্তিবদ্ধ সম্পর্কের সষ্টি হয় তাদের প্রত্যেককে অংশীদার এবং সম্মিলিতভাবে তাদের ব্যবসায়কে অংশীদারি ব্যবসায় বলা হয় ।


    একমালিকানা ব্যবসায়ের ধারণাঃ 

    পৃথিবীর প্রাচীনতম ও সহজ প্রকৃতির ব্যবসায়ের সংগঠনই হলাে একমালিকা ব্যবসায় । একজন ব্যক্তির মালিকানায় পরিচালিত ব্যবসায়কে এক মালিকানা ব্যবসায় বলে । সাধারণভাবে একজন ব্যক্তির মালিকানায় প্রতিষ্ঠিত , পরিচালিত ও নিয়ন্ত্রিত ব্যবসায়কে এক মালিকানা ব্যবসায় বলে । মুনাফা অর্জনের উদ্দেশ্য নিয়ে কোন ব্যক্তি নিজ দায়িত্বে পুজির সংস্থান করে যে ব্যবসায় গঠন,  পরিচালনা ও নিয়ন্ত্রন করে এবং সকল ঝুঁকি বহন ও সমুদয় মুনাফা একাই ভােগ করে তাকে এক মালিকানা ব্যবসায় বলে ।


    অংশীদারী ব্যবসা ও একমালিকানা ব্যবসায়ের প্রার্থক্যঃ 

    নিন্মে অংশীদারী ব্যবসা ও একমালিকানা ব্যবসায়ের প্রার্থক্য আলােচনা করা হলােঃ


    অংশীদারী ব্যবসায়ের তুলনায় একমালিকানা ব্যবসায়ের জনপ্রিয়তার যৌক্তিকতাঃ 

    এক মালিকানা সংগঠন ব্যবসায় সংগঠনগুলাের মধ্যে প্রাচীনতম । তবে প্রাচীনতম ব্যবসায় হলেও বৃহদায়তন ব্যবসায়ের সাথে প্রতিযােগীতা করে এখনও সবচেয়ে জনপ্রিয় ব্যবসায় হিসেবে টিকে আছে । এক মালিকানা ব্যবসায় এমন কিছু বৈশিষ্ট্য ও সুবিধা আছে যে কারনে এ জাতীয় ব্যবসায় সকলের নিকট জনপ্রিয় । তবে যেসব Per ত বৈশিষ্ঠ্য এক মালিকানা ব্যবসায়কে বড় ধরনের ব্যবসায়গুলাের পাশাপাশি জনপ্রিয়তার সাথে টিকে থাকার সুযােগ করে দিয়েছে । 

    সেগুলাে নিম্নে দেয়া হলাে : 

    ★সহজ গঠন : বৃহদায়তন ব্যবসায়ের মত এক মালিকানা ব্যবসায় গঠনে কোন আইনগত প্রক্রিয়া অবলম্বন করতে হয় না বা জটিলতা পােহাতে হয় না । সামান্য মুলধন নিয়ে যে কেউ এ ব্যবসায় গঠন করতে পারে । 

    • স্বল্প মুলধন : এমন কিছু ব্যবসায় আছে যেগুলাের জন্য বেশী অর্থের প্রয়ােজন পড়ে না । সে জাতীয় ব্যবসায়ের জন্য এক মালিকানা ব্যবসায়ই সবচেয়ে বেশী উপযােগী বলে বিবেচিত হয় । যেমন পানের দোকান , সবজির দোকান প্রভৃতি ।

    ★স্বাধীনতা : এক মালিকানা ব্যবসায়ের ক্ষেত্রে মালিককে সিদ্ধান্ডু গ্রহন , নিয়ন্ত্রনে কারাে সহায়তা নিতে হয় না বলে পূর্ণ স্বাধীনতা ভােগ করে । যা অন্য ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে চিন্তাই করা যায় না।

    ★ঝুঁকি কম: যে সকল ব্যবসায় ঝুঁকি কম সেগুলিই সবাই পছন্দ করে । কেননা কম আয়ের লােকেরা সাধারনত ঝুঁকি এড়িয়ে চলতে চান । ফলে তারা মন ব্যবসায়ই বেশী পছন্দ করেন । 

    ★অবস্থানগত সুবিধা: বৃহদায়তন ব্যবসায় যে কোন স্থানে গড়ে তােলা যায় না , অথচ ক্রেতা বা ভােক্তারা শহরে বন্দরে গ্রামে - গঞ্জের কে আনাচে - কানাচে বিক্ষিপ্তভাবে বসবাস করে ।

    ★ ক্ষেত্রগত সুবিধা : এমন কিছু ব্যবসায় ক্ষেত্র লক্ষনীয় যেখানে বৃহদায়তন ব্যবসায় পরিচালনা করা সম্ভব হয় না বরং সেখানে ক্ষুদ্র একমালিকানা ব্যবসায়ই সবচেয়ে বেশি উপযােগী সংগঠন । যেমন নিত্যপ্রয়ােজনীয় পণ্য , সীমিত চাহিদার পণ্য , প্রত্যড় অঞ্চলের চাহিদার পণ্য , ভ্রাম্যমান ব্যবসায় , পচনশীন ব্যবসায় , প্রত্যক্ষ সেবাধর্মী ব্যবসায় , পেশাদারী ব্যবসায় প্রভৃতি ।

    ★ পরিবর্তনশীল : এমন অনেক পণ্য আছে যেগুলাের চাহিদা ক্রেতাদের পরিবর্তনশীল বুচি , আগ্রহ ও আয়ের উপর নির্ভরশীল । সেসকল পণ্যের ব্যবসায়ের ক্ষেত্রে একমালিকানা ব্যবসায় বেশী উপযুক্ত । যেমন : দর্জির দোকান ।

    ★সহজ পরিচালনা : বৃহদায়তন ব্যবসায়ের মত পরিচালনাগত আনুষ্ঠানিকতা পালন করতে হয়না বলে এই ব্যবসায় সহজে পরিচালনা করা । 

    ★দ্রুত সিদ্ধান্ত গ্রহন : এক মালিকানা ব্যবসায় মালিক নিজেই সিদ্ধান্ড গ্রহন করে বলে যে কোন কাজ দ্রত করা সম্ভবপর হয় । অথচ যৌথ মালিকানার বৃহদায়তন ব্যবসায়ে দ্রুত সিদ্ধান্ত গ্রহনের কোন সুযোগ নেই ।

    ★ ব্যক্তিগত সম্পর্ক : একমালিকানা ব্যবসায় মালিক নিজে ব্যবসায় পরিচালনায় অংশগ্রহন করে বলে মালিক , শ্রমিক ও ক্রেতার প্রত্যক্ষ সম্পর্ক গড়ে ওঠে । কিচ্ছু বৃহদায়তন ব্যবসায় সাধারনত এরূপ সম্পর্ক সৃষ্টির সুযােগ থাকে না ।


    পরিশেষে বলা যায় , অংশীদারি ব্যবসায়ের তুলনায় কতকগুলাে সুবিধা বেশী থাকায় প্রাচীন এক মালিকানা ব্যবসায় আজকের বিশ্বে জনপ্রিয়তার শীর্ষে এবং বৃহদায়তন ব্যবসায়ের সাথে প্রতিযােগিতায় দাপটের সাথে টিকে আছে । তাইতাে বিশ্ব ব্যবসায় জগতের প্রায় ৮০ % ব্যবসায় একক মালিকানার ভিত্তিতে পরিচালিত হয়ে থাকে ।



    ২০২১ সালের এইচএসসি (বিএম) ৬ষ্ট সপ্তাহের এসাইনমেন্ট সমাধান /উত্তর ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা-১



    Tag: এইচএসসি বিএম এসাইনমেন্ট ২০২১ উত্তর/সমাধান ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা-১ (৬ষ্ট সপ্তাহ) এসাইনমেন্ট -৪,  ২০২১ সালের এইচএসসি (বিএম) ৬ষ্ট সপ্তাহের এসাইনমেন্ট সমাধান /উত্তর ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা-১, বাংলাদেশে অংশীদারী কারবারের তুলনায় এক মালিকানা ব্যবসা অধিক জনপ্রিয় ব্যাখ্যা কর

    Previous Post Next Post

    👇 সকল ক্লাসের এসাইনমেন্ট নোটিফিকেশন আকারে সহজে পেতে ডাউনলোড করুন আমাদের এপ্লিকেশন 

    আমাদের ফেসবুক পেইজে যুক্ত হতে ক্লিক করুন