এসএসসি এসাইনমেন্ট ২০২১ উত্তর হিসাববিজ্ঞান (৩য় সপ্তাহ) | ২০২১ সালের এসএসসি ৩য় সপ্তাহের হিসাববিজ্ঞান এসাইনমেন্ট সমাধান/উত্তর


    ২০২১ সালের এসএসসি ৩য় সপ্তাহের হিসাববিজ্ঞান এসাইনমেন্ট সমাধান/উত্তর


    জাবেদার ধারণা : 
    লেনদেন সংঘটিত হওয়ার সাথে সাথে আমাদেরকে যতটুকু সম্ভব লেনদেনের বিশদ বিবরণ লিপিবদ্ধ করতে হয় । লেনদেনের এই বিবরণ প্রাথমিকভাবে প্রথম জাবেদায় লিপিবদ্ধ করা হয় । লেনদেনের ডেবিট ও ক্রেডিট পক্ষ বিশ্লেষণ করে তারিখের ক্রমানুসারে ব্যাখ্যা সহকারে জাবেদাতে লিখে রাখা হয় পরবর্তী সময়ে হিসাবের পাকা বই খতিয়ান প্রস্তুতের ক্ষেত্রে জাবেদা সহায়ক বই হিসেবে কাজ করে । যার কারণেই জাবেদাকে হিসাবের প্রাথমিক বই বলা হয়  জাবেদা বই সংরক্ষণ বাধ্যতামূলক নয় কিন্তু হিসাব তৈরির সুবিধার্থে জাবেদা প্রয়ােজন । জাবেদায় লিপিবদ্ধ থাকার কারণে হিসাবে লেনদেন বাদ পড়ার সম্ভাবনা বহুলাংশে হ্রাস পায় ।

    জাবেদার গুরুত্ব : 
    প্রতিষ্ঠানের হিসাবের বই নির্ভুল ও স্বচ্ছ হওয়া অত্যাবশ্যক । এই হিসাবের ভিত্তিতেই প্রতিষ্ঠানের আর্থিক ফলাফল ও সার্বিক আর্থিক অবস্থা নিরূপণ করা হয় । হিসাববিজ্ঞানের মুখ্য এই উদ্দেশ্য অর্জনে জাবেদা কীভাবে সহায়ক ভূমিকা পালন করে , তা সংক্ষেপে বর্ণনা করা হলাে :

    ১. লেনদেন লিপিবদ্ধকরণ : প্রতিষ্ঠানে অসংখ্য লেনদেন সংঘঠিত হয় । এই লেনদেন সংঘঠিত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে খতিয়ানে লিপিবদ্ধ করা সম্ভব না - ও হতে পারে । জাবেদায় লেনদেন লিপিবদ্ধ থাকলে পরবর্তীতে খতিয়ানে অন্তর্ভুক্তকরণে কোনাে অসুবিধা হয় না ।

    ২. লেনদেনের মােট সংখ্যা ও পরিমাণ জানা : খতিয়ান হতে নির্দিষ্ট দিনে , সপ্তাহে বা মাসে কয়টি লেনদেন সংঘঠিত হয়েছে তা জানা সম্ভব নয় । জাবেদায় লেনদেন তারিখের ক্রমানুসারে লিখা হয় বলে নির্দিষ্ট তারিখে , সপ্তাহে বা মাসে মােট কয়টি লেনদেন ঘটেছে তা সহজেই জানা যায় । মােট কত টাকার লেনদেন বিভিন্ন সময়ে হয়েছে , তা -ও জাবেদা থেকে জানা সম্ভব । 

    ৩. দ্বৈত সত্তার প্রয়ােগ নিশ্চিত : দুতরফা দাখিলা পদ্ধতি অনুযায়ী লেনদেন সংশ্লিষ্ট ডেবিট ও ক্রেডিট পক্ষ একত্রে জাবেদায় লিখা হয় | ফলে জাবেদা হতে দ্বৈত সত্তার প্রয়ােগ সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যায়।

    ( খ ) বিশেষ জাবেদার শ্রেণিবিভাগকরণ : 
    ব্যবসায়ের প্রায় সমস্ত লেনদেনই নিচে উল্লেখিত কোনাে একটি বিশেষ জাবেদায় লিখা হয় । ১. ক্রয় জাবেদা : ক্রয় জাবেদায় প্রতিষ্ঠানের সকল বাকিতে পণ্য ক্রয় লিপিবদ্ধ করা হয় ।

    ২. বিক্রয় জাবেদা : বিক্রয় জাবেদায় প্রতিষ্ঠানের সকল বাকিতে পণ্য বিক্রয় লিপিবদ্ধ করা হয় । 

    ৩. ক্রয় ফেরত জাবেদা : বাকিতে ক্রয়কৃত পণ্য ফেরত দেওয়া হলে কয় ফেরত জাবেদায় লিপিবদ্ধ করা হয় ।

    ৪. বিক্রয় ফেরত জাবেদা : বাকিতে বিক্রয়কৃত পণ্য ফেরত পাওয়া গেলে বিক্রয় ফেরত জাবেদায় লিপিবদ্ধ করা হয় । 

    ৫. নগদ প্রাপ্তি জাবেদা : যে সকল লেনদেনের দ্বারা নগদ প্রাপ্তি ঘটে ( নগদ পণ্য বিক্রয়সহ ) , তা নগদ প্রাপ্তি জাবেদায় লিপিবদ্ধ করা হয় ।

    ৬. নগদ প্রদান জাবেদা : যে সকল লেনদেনের দ্বারা নগদ প্রদান ঘটে ( নগদ পণ্য ক্রয়সহ ) , তা নগদ প্রদান জাবেদায় লিপিবদ্ধ করা হয় ।

    ( গ ) প্রকৃত জাবেদার শ্রেণিবিভাগকরণ : 
    সাধারণ জাবেদা ও প্রকৃত জাবেদা একই অর্থবােধক । যে সকল লেনদেন বিশেষ জাবেদায় অন্তর্ভুক্ত হয় না সে সকল লেনদেন প্রকৃত জাবেদায় অন্তর্ভুক্ত হয় ।

    ১. সংশােধনী জাবেদা : লেনদেন লিপিবদ্ধকরণে কোনাে ভুল সংঘটিত হলে হিসাবে কাটা - ঘেঁড়া করে ঠিক করা যায় না । জাবেদা দাখিলার মাধ্যমে উক্ত ভুল সংশােধন করতে হয় । ভুল সংশােধনের জন্য যে জাবেদা দাখিলা প্রদান করা হয় তা -ই সংশােধনী জাবেদা ।

    ২. সমন্বয় জাবেদা : আর্থিক ফলাফল নিরূপণের জন্য আর্থিক বিবরণী প্রস্তুত করা হয় । আর্থিক বিবরণী প্রত্যুতের সময় বকেয়া বা অগ্রিম খরচ , প্রাপ্য অথবা অগ্রিম প্রাপ্ত আয় , অবচয় বা অবলােপন কুঋণ সঞ্চিতি ইত্যাদি লেনদেনের প্রাথমিক হিসাব বইতে অন্তর্ভুক্তির জন্য যে জাবেদা প্রস্তুত করা হয় , তাই সমন্বয় জাবেদা ।

    ৩. সমাপনী জাবেদা : কোন নির্দিষ্ট বছরের মুনাফা জাতীয় আয় ও ব্যয় পরবর্তী বছরের হিসাবে কোনাে প্রভাব ফেলবে না । তাই আর্থিক বিবরণী প্রতুতের সময় মুনাফা জাতীয় আয় ও ব্যয় হিসাবসমূহ বন্ধ করে দিতে হয় । হিসাব অধ্যায়ে আমরা জেনেছি , আয় হিসাব ক্রেডিট ও ব্যয় হিসাব ডেবিট উদ্বৃত্ত প্রকাশ করে । মুনাফা জাতীয় আয় ও ব্যয় হিসাব বন্ধ করার জন্য আয় হিসাব ডেবিট ও ব্যয় হিসাব ক্রেডিট করতে হবে । তাছাড়া সমাপনী জাবেদার মাধ্যমে উত্তোলন হিসাবও বন্ধ করা হয় । 

    ৪. প্রারম্ভিক জাবেদা : ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান একটি চলমান প্রক্রিয়া । বিগত বছরের হিসাবকালের শেষ দিনের সম্পদ , দায় ও মালিকানা স্বত্বের পরিমাণ পরবর্তী বছরের শুরুতে হিসাবে নিয়ে আসার জন্য প্রারম্ভিক দাখিলা প্রদান করা হয় ।

    ৫. অন্যান্য জাবেদা : বিশেষ জাবেদার লেনদেনসমূহ এবং প্রকৃত জাবেদার উল্লিখিত চার ধরনের লেনদেন ছাড়াও ব্যবসায়ে কতিপয় লেনদেন সম্পন্ন হয় , যেমন ধারে সম্পত্তি ক্রয় - বিক্রয় , বাট্টা প্রদান ও বাট্টা প্রাপ্তি , পণ্য বিতরণ প্রভৃতি । এসব লেনদেনও প্রকৃত জাবেদায় লিপিবদ্ধ হয় ।




    এসএসসি এসাইনমেন্ট ২০২১ উত্তর হিসাববিজ্ঞান (৩য় সপ্তাহ)



    Tag: এসএসসি এসাইনমেন্ট ২০২১ উত্তর হিসাববিজ্ঞান (৩য় সপ্তাহ),  ২০২১ সালের এসএসসি ৩য় সপ্তাহের হিসাববিজ্ঞান এসাইনমেন্ট সমাধান/উত্তর
    Previous Post Next Post

    👇 সকল ক্লাসের এসাইনমেন্ট নোটিফিকেশন আকারে সহজে পেতে ডাউনলোড করুন আমাদের এপ্লিকেশন 

    আমাদের ফেসবুক পেইজে যুক্ত হতে ক্লিক করুন